সর্বশেষ সংবাদ :

ছেলের বউয়ের অনৈতিক সম্পর্ক দেখে ফেলায় শাশুড়ীকে হত্যার চেষ্টা

Share Button

porokia_n

রিপোর্টারঃ-মোঃ সফিকুর রহমান সেলিম,ঢাকা
০৫ অক্টোবর ২০১৪

(রাউজান) চট্টগ্রাম প্রতিনিধিঃ চট্টগ্রামের রাউজানে প্রবাসী ছেলের বউয়ের সাথে গভীর রাতে ঘরের ভিতর এক সিএনজি টেক্সি চালকের অনৈতিক সম্পর্ক দেখে ফেলায় বৃদ্ধ শাশুড়ীকে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। আহত শ্বাশুড়ীকে মারাত্মক জখম অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানা গেছে। তার মাথা ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ গৃহবধূ ও পরকিয়া প্রেমিককে আটক করেছে।

রাউজানের পূর্বগুজরা ইউনিয়নের চতরপাড় এলাকায় মতিয়ুর রহমানের বাড়িতে গত শুক্রবার, ৩ অক্টোবর রাতে এই ঘটনাটি ঘটেছে ।

এই ঘটনাটি নিয়ে এলাকায় গতকাল শনিবার সকাল থেকে ব্যাপক ভাবে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। ঘটনার নিষ্পত্তির জন্য স্থানীয় চেয়ারম্যান গণ্যমান্য ব্যক্তিসহ অনৈতিক কাজে জড়িত গৃহবধুর বাপের বাড়ির লোকজন ডেকে সালিশী বৈঠক করেছে। এসময় পূর্ব গুজরা ইউপি কার্যালয়ে শত শত উৎসুখ জনতার ভীড় দেখা গেছে।

স্থানীয় জনসাধারণ জানিয়েছে, এলাকার জনৈক প্রবাসী কামাল উদ্দিনের স্ত্রীর ইয়াছমিন আকতার(২১) এর সাথে পরকিয়া সম্পর্ক ছিল গশ্চি নয়ারহাট এলাকার জনৈক সিএনজি অটো রিক্সা চালকের সাথে। দুজনের মধ্যে অনৈতিক এই সম্পর্কের বিষয়টি জেনে ফেলে স্থানীয় অপর এক সিএনজি চালক ইকবাল। সে এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে কামাল উদ্দিনের স্ত্রীর সব অপকর্ম প্রকাশ করে দেয়ার হুমকি দেয়। এই ভাবে হুমকির দেয়ার মাঝে আতংকিত ইয়াছমিন ইকবালের সাথে অবৈধ সম্পর্ক স্থাপন করতে বাধ্য হয়। এই ঘটনার ধারাবাহিকতায় গত শুক্রবার গভীর রাতে প্রবাসী কামাল উদ্দিন টিপুর ঘরে ইকবাল এসে ইয়াছমিনের সাথে অনৈতিক সম্পর্কে লিপ্ত হয়। এসময় ঘরে থাকা বৃদ্ধা শাশুড়ী বিষয়টি টের পায়। তিনি গোপনে দুজনে অনৈতিক অবস্থায় দেখে শোর-চিৎকার করতে থাকলে পাড়ার অন্যান্য লোকজন ছুটে আসার আগে অনৈতিক কাজে লিপ্তরা বৃদ্ধাকে ঝাপটে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যার চেষ্টা চালায়।

এসময় পাড়ার লোকজন জড়ো হলে ইকবাল আত্মরক্ষার্থে ঘরের খাটের নিচে লুকিয়ে পড়ে। তাকে উপস্থিত লোকজন লুকিয়ে থাকা অবস্থার থেকে ধরে হালকা গণপিটুনী দিলে কৌশলে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।

গতকাল শনিবার সকালে পূর্বগুজরার পুলিশ ফাঁড়ির লোকজনের সহায়তায় স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আব্বাস উদ্দিন ইকবালকে আটক করার পাশাপাশি প্রবাসীর স্ত্রীকে ইউপি কার্যালয়ে হাজির করে। এখানে ডেকে আনা হয় গৃহবধু ইয়াছমিনের বাপের বাড়ির লোকজনকে। জিজ্ঞাসাবাদে ইকবাল তার অনৈতিক কাজে জড়ানোর ঘটনা স্বীকার করে।

উল্লেখ্য যে, গৃহবধু ইয়াছমিনের বিয়ে হয়েছিল প্রায় তিন বছর আগে। এখনো তিনি নিঃসন্তান। তার বাপের বাড়ি পার্শ্ববতি রাঙ্গুনিয়া উপজেলার সরফভাটা গ্রামের কাজী পাড়ায়। প্রবাসী কামাল উদ্দিন বিগত প্রায় ছয় মাস আগে স্ত্রীকে রেখে মধ্যপ্রাচ্যে গিয়েছিল। বিষয়টি নিয়ে পূর্ব গুজরা ইউপি চেয়ারম্যান আব্বাস উদ্দিনের কাছে জানতে চাইলে তিনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আমরা এখনো বৈঠকে আছি। ছেলেটির সাথে ্ওই মেয়েকে আক্দ পরিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা চলছে।

Comments are closed.

Scroll To Top
Bangladesh Affairs