সর্বশেষ সংবাদ :

যে দেশে মানুষ জ্বলে । সম্পাদকীয় ।

Share Button

309892_422235337856210_194752672_n

সম্পাদকীয় :————— মুকুল খাঁন
সিডনি, অষ্টেলিয়া, ২৪ জানুয়ারী, ২০১৫।

যে দেশে মানুষ জ্বলে

আমার অত্যন্ত প্রিয় কবি হেলাল হাফিজ লিখেছিলেন জলে আগুন জ্বালানোর গল্প। আজ সিডনীর এই পড়ন্ত বিকেলে আমাকে সেই দেশের গল্প আপনাদের বলতে হবে যেই দেশে জলে আগুন জ্বালানোর আশা বাদ দিয়ে মানুষ মানুষকে আগুন দিয়ে জ্বালায়। এই পৃথিবীতে যখন থেকে মানুষের পদচারনা ঠিক ততদিন যাবত মানুষ ‘মন’ নামক এক অদ্ভুত বস্তুকে জ্বালিয়ে পাড়ি দিয়েছে নিজ নিজ ব্যক্তিগত জীবন। মনের জ্বালা নিয়ে গান, কবিতা, গল্প, উপন্যাস লিখে, মনে দুঃখ/জ্বালা নিয়ে মানুষ টিকে আছে শত-সহস্র বছর। কিন্তু এখানে আমরা মনের জ্বালার কথা বলবো না। আমরা এখানে এক অদ্ভুত রাজনৈতিক সমীকরণের সামনে দাড়িয়ে যে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করবো তা আমাদের দেশে কেউ কোনদিন ভাবেনি কিংবা দেখেও নি।

রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের বর্তমান পর্যায়ে আর কি কোন পন্থা বিরোধী দল গ্রহন করতে পারতো না (যদি এই পন্থা বিরোধী দলের হয়ে থাকে)? জামাতের মতো রাজনৈতিক আগাছাকে উপড়ানোর বর্তমান চেষ্টা শাসক দলের জন্য কিন্তু কোন নেতিবাচক ফলাফল বয়ে আনেনি। তাদের রাজনৈতিক/ ব্যক্তিগত ফায়দা তারা কিন্তু ঠিকই আদায় করে নিচ্ছে কিংবা নিয়েছে। ভারতীয় দালালী আর দেশীয় জনগণকে বৃদ্ধাঙ্গুলি, এই দুই কাজ ছাড়া অন্য কোন কাজ যদিও তারা কোন কালেই ভালোভাবে করতে পারেনি, তবুও বাংলাদেশের বর্তমান এই জ্বালাও পোড়াও কেন্দ্রিক রাজনীতির রাজনৈতিক ফায়দা তারা ঠিকই তাদের ঘরে নেয়ার পাঁয়তারা করছে কিংবা করবে।

এই আন্দোলনের আগেই আমরা বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা দ্বারা পরিচালিত রিপোর্ট পত্রিকার মারফত জানতে পেরেছিলাম। দেশে নাশকতা হবে আমাদের বিজ্ঞ মন্ত্রীরা আন্দোলন শুরুর আগেই ঢাক-ঢোল পিটিয়ে আমাদের জানিয়েছিলেন। এই নাশকতা ঠেকাতে তারা কি করেছিলেন? তাদের হাতে সর্বময় ক্ষমতা। পুলিশ, হিজিবিজি, রাব সবাই তাদের তল্পিবাহক হওয়ার পরও কিছুই কিন্তু তারা করে দেখাতে পারেন নি। তবে হ্যাঁ, তারা কিন্তু তাদের মুখ চালু রেখেছেন আর বড় বড় বক্তৃতা দিয়ে আমাদের বিরক্ত আর রাগান্বিত করেছেন। এই ছাড়া আর একটি কাজ যদি তারা করে দেখাতে পারতেন তাহলে এই লেখার আর প্রয়োজন পড়ত না।

রংপুরের পর যাত্রাবাড়ী, আর কত মানুষকে জ্বালালে এই দেশীয় গনতন্ত্র পরিপূর্ণতা পাবে? আর কত বাংলাদেশীকে সাংবিধানিক মৌলিক অধিকারের জন্য আগুনের নদী পাড়ি দিতে হবে? আর কত কৃষক আত্মহত্যা করলে আমাদের এই রাজনীতি পাপ মুক্ত হবে? আর কত জনি রাজপথে দাড়িয়ে মানুষের অধিকারের জন্য নিজের বুককে গুলিতে ঝাঁজরা করে কবরে গিয়ে নিভৃতে শুয়ে থাকবে? আর কত শিশু হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে মায়ের কাছে মানুষের নিষ্ঠুরতার গল্প শুনতে শুনতে ঘুমিয়ে যাবে?

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

Comments are closed.

Scroll To Top
Bangladesh Affairs