সর্বশেষ সংবাদ :

স্কুল ছাত্রীর মৃত্যুর সংবাদে ৭ ছাত্রী অসুস্থ্য: এলাকায় আতঙ্ক

Share Button

10940992_779601835440333_2576421546278757952_n

রিপোর্টঃ-মোঃ সফিকুর রহমান সেলিম
ঢাকা, ২১ জানুয়ারী, ২০১৫।

কুমিল্লার দেবীদ্বার উপজেলার রাজামেহার ইউনিয়নের ‘রাজামেহার উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর এক ছাত্রী অজ্ঞাত রোগে মৃত্যু হওয়ার সংবাদে ওই বিদ্যালয়ের ৭ ছাত্রী অসুস্থ্য হয়ে পড়েছে। দু’ছাত্রীকে আশংকাজনক অবস্থায় চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তী করা হয়েছে। অপর ৫শিক্ষার্থীকে স্থানীয় চিকিৎকের মাধ্যমে চিকিৎসা সেবা দেয়া হয়েছে। সংবাদ পেয়ে অভিভাবকরা উৎকন্ঠায় বিদ্যালয়ে ভীড় করতে থাকে। ঘটনাটি ঘটে বুধবার সকাল ১০টায় বিদ্যালয়ের এসেম্বলি চলাকালে। ওই ঘটনায় স্থানীয় প্রশাসনেও তোলপাড় চলতে থাকে। বুধবার দুপুরে দেবীদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ বেলায়েত হোসেনের নেতৃত্বে ৪ সদস্যের একটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান।
স্থানীয়রা জানান, অজ্ঞাত রোগে আক্রান্ত হয়ে অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী ইসরাত জাহান ইভা(১৩) মঙ্গলবার রাতে মারা যায়। সংবাদ পেয়ে ওই ছাত্রীর সহপাঠিরা ইভাকে দেখতে বুধবার সকালে তার বাড়িতে যায়। ওখানেও কয়েকজন শিক্ষার্থী অসুস্থ্য হয়ে পড়েন। অন্যান্য ছাত্রীরা বিদ্যালয়ে আসার পর এসেম্বলি চলাকালে ষষ্ঠ শ্রেণীর রাজিয়া সুলতানা এবং সপ্তম শ্রেণীর সাদিয়া আক্তার অসুস্থ্য হয়ে পড়ে। পরে শ্রেণী কক্ষে যাওয়ার পর ষষ্ঠ শ্রেণীর কাজী সুমাইয়া, শান্তা আক্তার, সুমি আক্তার, উম্মে হাবিবা, সনিয়া আক্তার অসুস্থ্য হলে তাদের দ্রুত স্থানীয় গ্রাম্য চিকিৎসক ডাঃ নুরুল ইসলামের মাধ্যমে প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা দেয়ার পর আশংকাজনক অবস্থায় সুমি আক্তার, শান্তা আক্তারকে চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।
সংবাদ পেয়ে অভিভাবকরা উৎকন্ঠিত হয়ে বিদ্যালয়ে ভীড় করতে থাকে। অপর দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ হোসেন এবং শিক্ষা অফিসার আবু তালেব, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ জাহাঙ্গীর আলম সরকার খোঁজ খবর নেয়ায় বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বিদ্যালয় ছুটি ঘোষনা করেন এবং একই সাথে আজ বৃহস্পতিবারও বিদ্যালয় ছুটি ঘোষনা করেন।
ঘটনাটি জণমনে আতঙ্ক দেখা দিলে স্কুল ছাত্রীর মৃত্যু এবং শিক্ষার্থীদের অসুস্থ্যতার কারন অনুসন্ধ্যানে বুধবার দুপুরে দেবীদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ বেলায়েত হোসেনের নেতৃত্বে ৪ সদস্যের একটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান। ৪ সদস্যের পরিদর্শন টিমের অন্যান্য সদ্যস্যরা হলেন, উপজেলা মাধ্যমিক সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ শাহ আলম, সাংবাদিক এবিএম আতিকুর রহমান বাশার, দৈনিক যুগান্তর দেবীদ্বার প্রতিনিধি মোঃ আক্তার হোসেন।
রাজামেহার উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল মোমেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী ইসরাত জাহান ইভা(১৩) অসুস্থ্য ছিলেন, তার মৃত্যু বিদ্যালয়ে ক্লাশ করাকালীন হয়নি। গত ৩দিন যাবত সে অসুস্থ্যতার কারনে বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত ছিল। অন্যান্য শিক্ষার্থীরা কথিত অজ্ঞাত রোগে ওই ছাত্রীর মৃত্যু হওয়ার সংবাদ পেয়ে ভয়ে অসুস্থ্য হয়ে পড়েছিল। এসেম্বলি চলাকালে দু’জন এবং শ্রেণী কক্ষে আরো ৫জন অসুস্থ্য হয়েছিল। ওদের একজন সপ্তম শেনীর এবং বাকীরা ষষ্ঠ শ্রেনীর শিক্ষার্থী ছিল। এদের দু’জনকে আশংকাজনক অবস্থায় চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তী করা হয়েছে।
রাজামেহার ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ মনিরুল হক (তাজু) সরকার বলেন, প্রচন্ড শীতের কারনে এবং কথিত অজ্ঞাত রোগে ছাত্রী নিহতের ঘটনায় আতঙ্কীত হয়ে অসুস্থ্য হয়ে পড়ে। এতে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই।
দেবীদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ বেলায়েত হোসেন, চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মেহের পারভিন, চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডাঃ মামুন, ডাঃ লায়লা নূর, রাজামেহার গ্রামের গ্রাম্য চিকিৎসক ডাঃ নুরুল ইসলাম, দেবীদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য পরিদর্শক আবুল কাসেম মৃত্যুর কারন হিসেবে জানান, নিহত ছাত্রী ইসরাত জাহান ইভা(১৩) দীর্ঘদিন যাবৎ গলায় টন্সিলের সমস্যায় ভোগছিল। কুমিল্লা সদর হাসপাতালের সিনিয়র কনসাল্টেন্ট ডাঃ মোঃ হারুন-অর-রশিদের চিকিৎসাধীন ছিল। সিরিয়াস টন্সিলার একসেস এন্ড কমপ্লিকেশনের কারনে তার মৃত্যু হয়। অভিভাবকদের অসতর্কতাও এরজন্য দায়ি। গত ক’দিন ধরে টন্সিল ফুলে শ্বাস নালী বন্ধ হয়ে টনসিল ফেটে তার মৃত্যু হয়েছে বলে ধারনা করা হচ্ছে। অন্যান্য শিক্ষার্থীরা অসুস্থ্য হয়েছেন না খেয়ে স্কুলে যাওয়া, মৃত্যু আতঙ্ক এবং প্রকট শীতের কারনে। অসুস্থ্য ছাত্রীরা সবাই ভালো আছে।
চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তী হওয়া দু’শিক্ষার্থী সুমি আক্তার, শান্তা আক্তার জানায়, স্কুলে যাওয়ার সময় তারা কিছু খেয়ে যেতে পারেনি। নিহত স্কুল ছাত্রী ইসরাত জাহান ইভা রাজামেহার গ্রামের সৌদী প্রবাসী মোঃ ইব্রাহীম মিয়ার বড় সন্তান ছিল। বুধবার বাদ জোহর তার জানাযা শেষে তার নিজ পারিবারিক গোরস্তানে দাফন সম্পন্ন করা হয়। জানাযায় প্রশাসন, রাজনীতিক, সাংবাদিক, সুশীল সমাজের বিপুল সংখ্যক গন্যমান্য ব্যাক্তিঊর্গ ও স্বজনেরা উপস্থিত ছিলেন।
প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

Comments are closed.

Scroll To Top
Bangladesh Affairs