সর্বশেষ সংবাদ :

সিনিয়রদের নির্দেশ চান শামীম ওসমান

Share Button

shamim-54_78525

রিপোর্টঃ-মোঃ সফিকুর রহমান সেলিম
ঢাকা, ২১ জানুয়ারী, ২০১৫।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া এবং তার সঙ্গে থাকা পরাজিত শক্তিকে নিঃশেষ করে দিতে সিনিয়রদের নির্দেশ চান নারায়ণগঞ্জের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান। বুধবার সন্ধ্যায় জাতীয় সংসদে এক অনির্ধারিত আলোচনায় আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতাদের কাছে এ নির্দেশ চেয়েছেন তিনি।
 মাগরিবের বিরতির পরে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের বৈঠক শুরু হলে শামীম ওসমান ছাড়াও স্বতন্ত্র সদস্য হাজী মো. সেলিম, তাহজীব আলম সিদ্দিকী এবং বাংলাদেশ ন্যাশনালিষ্ট ফ্রন্ট-বিএনএফ সদস্য আবুল কালাম আজাদ চলমান রাজনৈতিক সঙ্কট নিয়ে বক্তব্য রাখেন।
 বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের দেশজুড়ে নৈরাজ্য বন্ধে শামীম ওসমান নিজ দলের সিনিয়র নেতাদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আপনারা নির্দেশ দেন। পুলিশ-বিডিআর-সেনাবাহিনীর দরকার নাই। খালেদা জিয়া আর তার পরাজিত শক্তিকে নিঃশেষ করতে আওয়ামী লীগের লাখ লাখ কর্মী রাজপথে থাকবে।’একই সঙ্গে তিনি স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে বলেন, ব্যবস্থা নেন। তিনি আরও বলেন, ‘খালেদা জিয়ার পদত্যাগ করা উচিত। নির্বাসনে চলে যাওয়া উচিত।’ লন্ডনে অবস্থানরত বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিভিন্ন বক্তব্যেরও সমালোচনার পাশাপাশি সুশীল সমাজেরও সমালোচনা করেন তিনি। তারকের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, যে ছেলে এরশাদ সাহেবকে তার বাবার খুনী বলে। সে আবার তার কাছে ২০০৮ সালের নির্বাচনের আগে গিয়েছিলো জোট করার জন্য। শামীম ওসমান বলেন, ‘কেন তারেকের এই বক্তব্য। বাংলাদেশে কিছু সুশীল আছে তারা কিছু করছেন না। একজন সুশীল আছেন, তিনিও প্রস্তাব দেন। যার মেয়ে ইহুদী বিয়ে করেছেন। যার জামাই আবার রাজাকারদের পক্ষে জামাতের পক্ষে কাজ করছে। আরেকজন সুশীল, তিনি আরও বড় সুশীল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনের শিক্ষক। কয়েকটা বিয়ে করেছেন।’ সরকার দলীয় এই সংসদ সদস্য বলেন, ‘সাবেক বিএনপি নেত্রী বর্তমান জামাত নেত্রীকে (খালেদা জিয়া) কেন আমরা বোঝানোর চেষ্টা করছি। এটা ব্যর্থ প্রচেষ্টা। সংসদের পয়সা খরচ হচ্ছে। সংসদে কেন আমরা তাকে নিয়ে আলোচনা করবো। সে কি সব কিছুর উর্ধ্বে?’ শামীম ওসমান বলেন, তিনি (খালেদা জিয়া ) বাড়ির জন্য কাঁদেন। কিন্তু স্বামীর জন্য কাঁদেন না। এর আগে স্বতন্ত্র সদস্য হাজী মো. সেলিম অবরোধ কর্মসূচিতে ব্যবসায়ীদের দুর্দশার কথা তুলে ধরে বলেন, অরাজকতা না ঠেকালে ব্যবসা বন্ধ হয়ে যাবে। সংসদে রাজনীতির কথা হয়েছে। ব্যবসায়ীদের কথা কেউ বলেনি। তাদের দুর্দশার অন্ত নেই। বিএনএফ’র আবুল কালাম আজাদ গুলশানে খালেদা কার্যালয়ে ‘কম্বিং’ অপারেশনের দাবি করেন। স্বতন্ত্র সদস্য তাহজীব আলম সিদ্দিকী সরকারের উদ্দেশ্যে বলেন, বক্তৃতা-বিবৃতি চাই না। সংকটের আশু সমাধান চাই।

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

Comments are closed.

Scroll To Top
Bangladesh Affairs