সর্বশেষ সংবাদ :

মধ্যরাত থেকে ১১ দিন ইলিশ আহরণ বিক্রি মজুদ নিষিদ্ধ মাইকিং করে ইলিশ বিক্রি !

Share Button

Hilisha-Fish

রিপোর্টারঃ-মোঃ সফিকুর রহমান সেলিম,ঢাকা
০৫ অক্টোবর ২০১৪

দেশের নদ-নদী, সুন্দরবনের জলসীমা ও বঙ্গোপসাগরের বাংলাদেশের সমুদ্র সীমায় রবিবার মধ্য রাত থেকে ১১ দিনের জন্য ইলিশ মাছ আহরন, বিক্রি ও মজুদ নিষিদ্ধ করেছে মৎস্য ও প্রানী সম্পদ মন্ত্রনালয়। শনিবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত বাগেরহাটের বিভিন্ন বাজার ও মৎস্য অবতরন কেন্দ্রগুলোতে জেলে- মৎস্যজীবীদের বিষয়টি অবহিত করতে ব্যাপক গনসংযোগ করেন মৎস্য ও প্রানী সম্পদ মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এ্যাডভোকেট মীর শওকাত আলী বাদশা এমপি।

এদিকে সরকার ১১ দিনের জন্য ইলিশ মাছ আহরন, বিক্রি ও মজুদ নিষিদ্ধ করায় বঙ্গোপসাগর থেকে সব ফিশিং ট্রলারগুলো প্রচুর ইলিশ নিয়ে উপকূলের মৎস্য অবতরন কেন্দ্রগুলোতে ফিরে আসায় বাজারে ইলিশ মাছ বিক্রি হচ্ছে কম দামে। বাজারে সরবরাহর থেকে ক্রেতা কম থাকায় জেলার বাজারগুলোতে মাইকিং করে বিক্রি হচ্ছে রূপালী ইলিশ।
রবিবার মধ্য রাত থেকে ১১ দিনের জন্য ইলিশ মাছ আহরন, বিক্রি ও মজুদ নিষিদ্ধের বিষয়ে বিভিন্ন বাজার ও মৎস্য অবতরন কেন্দ্রগুলোতে জেলে- মৎস্যজীবীদের মাঝে গনসংযোগ শেষে বাগেরহাট প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করেন মৎস্য ও প্রানী সম্পদ মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এ্যাডভোকেট মীর শওকাত আলী বাদশা এমপি। তিনি জানান, প্রজনন মৌসুমে ১১দিন ইলিশ আহরন বন্ধ থাকার কারনে ইলিশের উৎপাদন তিন গুন বেড়ে যাবে। এতে করে সবাই লাভবান হবে,-এবিষয়টি জানাতে সকাল থেকেই আমি বাগেরহাটের বিভিন্ন বাজার ও মৎস্য অবতরন কেন্দ্রগুলোতে জেলে- মৎস্যজীবীদের অবহিত করেছি।

তিনি আরও জানান, চন্দ্রমাসের ভিত্তিতে প্রধান প্রজনন মৌসুম ধরে গত বছর সংশোধিত ‘মৎস্য সংরক্ষণ ও সুরক্ষা আইন’ অনুযায়ী আশ্বিনী প্রথম চাঁদের পূর্ণিমার দিন এবং এর আগে ও পরের পাঁচদিন করে মোট ১১ দিন ইলিশ ধরা বন্ধ থাকবে। এ বছর আশ্বিন মাসের পূর্ণিমা ১০ অক্টোবর। এ সময়ে ইলিশ ধরা ও বিক্রির পাশাপাশি সরবরাহ ও মজুদও নিষিদ্ধ থাকবে। এ আদেশ অমান্য করলে তা দন্ডনীয় অপরাধ হিসেবে বিবেচিত করে অভিযুক্তদের এক মাস থেকে সর্বোচ্চ ছয় মাস পর্যন্ত কারাদন্ড এবং এক হাজার টাকা জরিমানা গুনতে হবে। তবে একজন দু’বার একই অপরাধের জন্য দ্বিগুণ হারে শাস্তি ভোগ করতে হবে অভিযুক্তদের।

Comments are closed.

Scroll To Top
Bangladesh Affairs