সর্বশেষ সংবাদ :

৫ জানুয়ারি বিক্ষোভ করবে খেলাফত মজলিস

Share Button

mawlana-ishak

রিপোর্টঃ-মোঃ সফিকুর রহমান সেলিম
ঢাকা, ২৫ ডিসেম্বর, ২০১৪।

৫ জানুয়ারি ভোটাধিকার হরণ দিবস পালন করবে খেলাফত মজলিস। ওইদিন সারা দেশে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে।

বৃহস্পতিবার সকাল নয়টায় গুলিস্তানে কাজী বশির মিলনায়তনে খেলাফত মজলিসের অষ্টম সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে এই কর্মসূচি ঘোষণা দেন দলের আমির অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক।

মাওলানা ইসহাক বলেন, ‘অচিরেই দেখবেন চরম আন্দোলন হবে। এই জালেম সরকার সরে যেতে বাধ্য হবে। ৫ জানুয়ারি ভোটাধিকার হরণ দিবস পালন করা হবে। সরকার যদি বাধা দেয় তবে লাগাতার কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে। তখন আর বিরতি দেয়া হবে না।’

সরকার দলীয় ছাত্রসংগঠন ছাত্রলীগ এখন গুণ্ডা বাহিনীতে পরিণত হয়েছে বলে মন্তব্য করেন অধ্যক্ষ মাওলানা মো. ইসহাক।

তিনি বলেন, ‘ছাত্রলীগ ঐতিহ্যবাহী সংগঠন ছিল। এখন গুণ্ডা বাহিনীতে পরিণত হয়েছে। ছাত্রলীগ, যুবলীগের গুণ্ডারা একের পর এক অপকর্ম করে যাচ্ছে। টেন্ডারবাজি, ভর্তি বানিজ্য করছে।  তারা ঘোষণা দিয়েছে আমাদেরকে কোথাও সমাবেশ করতে দিবে না। এটা তাদের বাপ দাদার জমিদারি না। যেখানে বাধা আসবে সেখানে প্রতিরোধ গড়ে তোলা হবে।

মাওলানা ইসহাক বলেন, ‘এই দেশ জমিদারি নয়, কারো বাপের সম্পত্তি নয়। এমন আন্দোলন হবে পায়ের নিচের মাটি খুঁজে পাবে না। আমি তৈরি আছি জীবন দেয়ার জন্য।

সরকার ও পুলিশের সমালোচনা করে মাওলানা ইসহাক বলেন, ‘দেশে আইনশৃঙ্খলা বলতে কিছু নেই। ছোট শিশুদের পর্যন্ত গুম করা হচ্ছে, আটকে রেখে মুক্তিপণ আদায় করা হচ্ছে। জনগণের টাকায় পরিচালিত হয় পুলিশ, তাদের ভূমিকা জনগণের সেবক হওয়ার কথা ছিল। নারায়ণগঞ্জে র‍্যাব টাকার বিনিময়ে মানুষ মেরেছে। অনেক মাদ্রাসায় গোয়েন্দা বাহিনী খোঁজ খবর নেয়।

দলটির অফিস ও প্রচার সম্পাদক অধ্যাপক মো. আবদুল জলিল বলেন, ‘দুর্নীতিমুক্ত সমাজ চাই, জনগণের সরকার চাই’ এ শ্লোগানকে সামনে রেখে সারাদেশের তৃণমূল দায়িত্বশীলদের নিয়ে এই অধিবেশন অনুষ্ঠিত হবে।’

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন খেলাফত মজলিসের আমির অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক। দলের মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদেরসহ কেন্দ্রীয় নেতারা এতে বক্তব্য দেন।

সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে আরো উপস্থিত ছিলেন দলটির মহাসচিব আহমদ আবদুল কাদের, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা শফিকুর রহমান, অধ্যাপক এম কে জামান, জাহাঙ্গীর হোসাইন, অধ্যাপক আবদুল হালিম, মুহাম্মদ মুন্তাসির আলী, শেখ আযহার, অফিস ও প্রচার সম্পাদক অধ্যাপক মো. আবদুল জলিল প্রমুখ।

Comments are closed.

Scroll To Top
Bangladesh Affairs