সর্বশেষ সংবাদ :

কেরানীগঞ্জের কামান, বরিশালের জং এবং নরসিংদীর খাইরুলের যুদ্ধ ঘোষণা।সম্পাদকীয়

Share Button

 309892_422235337856210_194752672_n

সম্পাদকীয় :————— মুকুল খাঁন
সিডনি, অষ্টেলিয়া , ২০ ডিসেম্বর, ২০১৪।

১৮ তারিখ কেরানীগঞ্জের চোরা কামান, বরিশালের জং বল্লম এবং নরসিংদীর লেডিস খাইরুলের যুদ্ধ ঘোষণার খবর বোধ করি আপনারা সবাই পড়েছেন। পড়ার তো কথাই। এমন নিমকহারাম আর ক্লাউন চরিত্র আপনি, আমি, আমরা সবাই এই পৃথিবীর কথাও খুজে পাব কিনা এক খোদাতালাই বলতে পারবেন। আমরা খালেদা জিয়ার ভুল বারবার ধরিয়ে দিতে পারব না। আমরা তো বিএনপির নেতাদের তল্পিবাহক নই যে তাদের ভুলের দায়-দায়িত্ব আমাদের তথা তৃণমূলকেই নিতে হবে বার বার।

৯০-এর গন অভ্যুত্থানে কারা কারা নেতৃত্ব দিয়েছিল তা আজ যারা মধ্যবয়স্ক তারা বোধকরি বলতে পারবেন সেই সময়ের সাতকাহন। ডাকসু নির্বাচনে  আমাদের তথা নিরু ভাইয়ের সমর্থন যদি এরা খালেদা জিয়ার মাধ্যমে অর্জন না করতো তাহলে আজ তাদের এইসব গাঁজাখুরি কনভেনশন করার পায়তারা করার সুযোগ তারা পেত কিনা!!!! আজ আম জনতার কাছে এই জিজ্ঞাসা। ৯০-এর পরের কিছু চিত্র যারা জানেন না তাদের হয়তো অনেক হিসাব মিলাতে কষ্ট হচ্ছে। এই কামান/বল্লম গং ৯০-এর পরে বাংলাদেশের বিভিন্ন শিল্পপতিদের ব্ল্যাকমেইল করে শত শত কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছিল। তার মধ্যে অন্যতম প্রধান ছিলেন কে জেড ইসলাম (প্রাক্তন ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি, নির্মাণ ইন্টারন্যাশনাল এর মালিক)।  অবশ্য এই কথা কে না জানে যে এই সকল চাঁদাবাজির ভাগ অনেক বিএনপি নেতাই পেয়েছেন। এই গং, এমন কোন কাজ নেই যা তারা করতে পিছপা হয়েছিল। খালেদা জিয়া কি এই সব জানেন না ? অবশ্যই জানেন। তার পার্টির কারা রাতের আঁধারে আওয়ামী মদের বারে গিয়ে মুখ ডুবায় তাদের কথা যদি নেত্রী না জানেন তবে এটা হবে বিএনপির জন্য লজ্জাজনক। নেত্রী জেনেও না জানার ভান করে থাকলে বলার কিছু নাই। আর তারই ধারাবাহিকতায় গত চব্বিশ বছর এদেরকেই আমরা বিএনপির কাণ্ডারির ভুমিকায় বানরের মতো লাফিয়ে লাফিয়ে চলতে দেখি। বানরের মতো লাফাতে লাফাতে যখন তারা নেত্রীর মাথায় উঠে গেল তখন নেত্রীর কিছুই করার থাকল না। হায় রে নেত্রী? এই দুঃখ কোথায় রাখি?

এখানে কথা হল, বিএনপির লজ্জা আছে কিনা? আজো তৃণমুলের সমাবেশ গুলিতে আমরা দেখি সেই সব চোরদের, যারা পার্টিকে একটা চোরের দল হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছে। তাদের জ্বালাময়ী আগুন ঝরান বক্তৃতা শুনতে শুনতে তৃনমূলের নেতাকর্মীরা তাদের দিকে যে ঘৃণা/থুতু ছিটিয়ে দেয় তা বোধ করি আমাদের নেত্রী দেখতে পান না। আর দেখতে পান না বলেই আজ এই চোর গুলিরে দিয়ে নেত্রী কনভেনশন-এর ডাক দিয়েছেন। হায় রে জিয়াউর রাহমান!!!!!! আমরা আর কিভাবে আপনার স্বপ্ন পুরন করবো? কিভাবে মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার ফিরিয়ে দিব? কিভাবে মানুষের মৌলিক অধিকার প্রতিষ্ঠা করবো?  গরীব দুঃখী মানুষের জন্য আপনি যে কাজ আমাদের সঁপে দিয়েছিলেন, কিভাবে আমরা সেই কাজ শেষ করবো? আমাদের যে বয়স বেড়ে যায়।

Comments are closed.

Scroll To Top
Bangladesh Affairs