সর্বশেষ সংবাদ :

কুমিল্লার হোমনায় ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ

Share Button

রিপোর্টার:-দৈনিক মুক্তকন্ঠ,
০৬ জুন ২০২০। সময : ০৯,১৫. PM

হোমনার আছাদপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো. জালাল উদ্দিন পাঠানের বিরুদ্ধে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। তার দুর্নীতি ও স্বজনপ্রীতির বিরুদ্ধে বুধবার পরিষদের ৯ সদস্য ইউএনও বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। জানা যায়, মো. জালাল উদ্দিন পাঠান টিআর, কাবিখা, কাবিটা, ভিজিডি, ভিজিএফ, এডিবি, এলজিএসপি, রাজস্ব, হাটবাজার ইজারা, ১% খাতের অর্থ পরিষদের কোনো সদস্যের সঙ্গে আলোচনা না করে নিজের ইচ্ছামতো খরচ করেন। ইউপি চেয়ারম্যান অনিয়ম করে সচিবের মাধ্যমে একাধিক প্রকল্প দেখিয়ে নামমাত্র কাজ করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়া নিয়েছেন। এ ছাড়া জনসাধারণের কাছ থেকে নিয়মিত ট্যাক্স আদায় করা হলেও সদস্যদের পরিষদের অংশের ২০ মাসের সম্মানি ভাতা পরিশোধ করছেন না।

এতে এক থেকে দেড় লাখ টাকা করে আটকে রেখেছেন তিনি। ইউপি সদস্য মো. হাফেজ মেম্বার জানান, চেয়ারম্যান জালাল উদ্দিন পাঠান যুবলীগ নেতা মোছলেম হত্যা মামলার চার্জশিটভুক্ত আসামি। পরিষদের টাকা নয়ছয় করে এ মামলায় তদবিরে খরচ করেছেন। পরে হত্যা মামলা থেকে বাঁচতে তিনি বিএনপি ছেড়ে আওয়ামী লীগে যোগ দিয়েছেন। এর পর থেকে দলীয় প্রভাবশালী কিছু নেতাকে আর্থিক সুযোগ সুবিধা দিয়ে ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে ইউপি সদস্যদের কাছ থেকে অগ্রিম স্বাক্ষর নিয়ে তাদের নামে প্রকল্প দেখিয়ে সব টাকা আত্মসাৎ করেন। তবে আছাদপুর ইউপি চেয়ারম্যান জালাল উদ্দিন পাঠান মুঠো ফোনে যুগান্তরকে জানান, পরিষদের ট্যাক্স আদায় না হওয়ায় সদস্যদের সম্মানি বকেয়া রয়েছে। এ বছর তা পরিশোধ করা হবে।

তাছাড়া তাদের অন্য অভিযোগ সত্য নয়। আমি কোনো অনিয়মের সাথে জড়িত নই। ইউএনও তাপ্তি চাকমা বলেন, ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ৯ জন মেম্বারের লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্তসাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

য়ুগান্তর ৬জুন।

Comments are closed.

Scroll To Top
Bangladesh Affairs