সর্বশেষ সংবাদ :

বাংলাদেশে সব ধর্মের মানুষের সমানাধিকার রয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

Share Button

রিপোর্টার:-দৈনিক মুক্তকন্ঠ,
২৩ ডিসেম্বর , ২০১৯। সময ০৯.৩০. PM

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাংলাদেশে সব ধর্মের মানুষের সমান অধিকার রয়েছে। যে কোনো ধর্মের উৎসব আয়োজনে সরকার প্রতিবছরই সহযোগিতা করে থাকে। এবারও খ্রিষ্টান ধর্মের বড়দিন উপলক্ষে সহযোগিতা করা হয়েছে। যাতে বড়দিনে প্রত্যেকে মিষ্টিমুখ করতে পারেন। সোমবার বিকালে গণভবনে খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের সঙ্গে বড়দিনের শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের মুসলমানরা যেমন ১০০ টাকার মাধ্যমে তার সন্তানদের সম্পত্তি হেবা করে দিতে পারেন, এই সুযোগ খ্রিষ্টানদের ছিল না। আমরা আইন করে আপনাদের সন্তানদের ক্ষেত্রে একই টাকায় এ ধরনের সম্পত্তি দেয়ার বিধান করেছি। ফলে আপনাদের সন্তানদের জন্য সমান সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে।

২০০৯ সালে খ্রিষ্টান ধর্ম কল্যাণ ট্রাস্টে ৫ কোটি টাকা অনুদান দেয়া হয়েছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী খ্রিষ্টান ধর্মের ধনাঢ্যদের ওই ট্রাস্টে অনুদান দেয়ার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, আপনারা গণভবনে এসেছেন, গণভবনের মাটি ধন্য হয়েছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু মানুষের সেবা করার জন্যই রাজনীতি করতেন। মানুষ যেন দারিদ্র্যের কষাঘাত থেকে মুক্তি পায়, সেজন্য তিনি কাজ করছেন। যারা মানুষের জন্য কাজ করেন, তাদের কেন এভাবে ব্যথা পেতে হয় তা জানি না।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের খ্রিষ্টান ধর্মাবলম্বীদের মাধ্যমে সারাবিশ্বে থাকা এ ধর্মের মানুষের প্রতি বড়দিনের শুভেচ্ছা জানান। শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ। এই বাংলাদেশে ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সবাই সমান অধিকার নিয়ে বসবাস করবে, সমান সুযোগ নিয়ে বসবাস করবে। আমরা সেই নীতিতে বিশ্বাস করি।

Comments are closed.

Scroll To Top
Bangladesh Affairs