সর্বশেষ সংবাদ :

দেশ ও জাতির স্বার্থকে আগে বিবেচনা করতে হবে: রাষ্ট্রপতি

Share Button

রিপোর্ট:-দৈনিক মুক্তকন্ঠ,
২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯। সময়: ১১,৩০,PM.

একাডেমিক শিক্ষার পাশাপাশি নৈতিক শিক্ষার প্রতি গুরুত্বারোপ করে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ দেশের স্বার্থকে প্রাধান্য দেওয়ার জন্য শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘দেশ ও জাতির স্বার্থকে সর্বাগ্রে বিবেচনা করবে। জীবনে কখনো মিথ্যা বা অন্যায়ের সঙ্গে আপস করবে না’।

সোমবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ইউনির্ভাসিটি অব লিবারাল আর্টস বাংলাদেশ (ইউল্যাব)-এর ৫ম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে প্রদত্ত ভাষণে এ সব কথা বলেন তিনি।

রাষ্ট্রপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য সামাজিক প্রভাব সত্ত্বেও তাদের (শিক্ষার্থীদের) প্রতি ব্যক্তি হিসাবে আদর্শ সমুন্নত রাখার আহ্বান জানান। শিক্ষার্থীদের নৈতিকতা সৃষ্টির ওপর গুরুত্বারোপ করে তিনি বলেন, ‘শিক্ষা সমাজকে আলোকিত করে কিন্তু নৈতিকতা বিহীন শিক্ষা দেশ অথবা জাতির জন্য কোন ভালো কিছু বয়ে আনে না’।

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় শুধু শিক্ষা কেন্দ্রই নয়, বরং তা জ্ঞান, দক্ষতা অর্জন ও গবেষণার সর্বোচ্চ জায়গা।

রাষ্ট্রপতি মুক্তচিন্তা, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বিষয়ে আলোচনা, জাতিগঠনমূলক কাজ, সমকালীন চিন্তা, সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড ও খেলাধুলাসহ পাঠ্যসূচি বহির্ভূত বিভিন্ন সৃষ্টিশীল কর্মকাণ্ডে শিক্ষার্থীদের সম্পৃক্ত করার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান।

আবদুল হামিদ দেশের গৌরবময় অতীতের সঙ্গে সম্পৃক্ত করার লক্ষ্যে নতুন প্রজন্মকে দেশের ইতিহাস ও ঐতিহ্যের সঙ্গে নতুন প্রজন্মকে পরিচিত করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অবদানের কথা স্মরণ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘একটি প্রতিক্রিয়াশীল গোষ্ঠী বঙ্গবন্ধুর অবদান মুছে ফেলার চেষ্টা করছে। কিন্তু তাদের এ সব অপচেষ্টার বিরুদ্ধে আমাদের সজাগ থাকতে হবে। আমাদের অবশ্যই গৌরবময় অতীত, মহান মুক্তিযুদ্ধ এবং আমাদের মহান নেতা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্মরণ রাখতে হবে’। বাসস

Comments are closed.

Scroll To Top
Bangladesh Affairs