সর্বশেষ সংবাদ :

নতুন সেনাপ্রধান হলেন বৃহত্তর কুমিল্লার সন্তান আজিজ আহমেদ

Share Button

রিপোর্ট:-দৈনিক মুক্তকন্ঠ,
 ১৯ জুন ২০১৮। সময়: ১১,২০.PM,

বৃহত্তর কুমিল্লার চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার সন্তান নতুন সেনাপ্রধান, বিজিবির সাবেক মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আজিজ আহমেদ, বিজিবিএম, পিবিজিএম, এনডিসি, পিএসসি, জি। তিনি ১ জানুয়ারি ১৯৬১ সালে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। পিতা মরহুম আব্দুল ওয়াদুদ এবং মাতা রেনুজা বেগম। সম্প্রতি মেজর জেনারেল আজিজ আহমেদকে লে. জেনারেল পদে পদোন্নতি দিয়ে বিজিবি থেকে আর্মি ট্রেনিং অ্যান্ড ডকট্রিন্যাল কমান্ডের জিওসি হিসেবে বদলি করা হয়।

মেজর জেনারেল আজিজ ৭ মে ২০১২ সালে বর্তমান পদে পদোন্নতি লাভ করেন এবং সদর দপ্তর ৩৩ পদাতিক ডিভিশন এর জিওসি এবং এরিয়া কমান্ডার, কুমিল্লা এরিয়া হিসাবে নিয়োগপ্রাপ্ত হন। সর্বশেষ ৫ ডিসেম্বর ২০১২ সালে তিনি বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)-এর মহাপরিচালকের দায়িত্বভার গ্রহণ করেন।

মেজর জেনারেল আজিজ ৮ম বিএমএ দীর্ঘ মেয়াদী কোর্সের সাথে ১০ জুন ১৯৮৩ সালে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর আর্টিলারি কোরে কমিশন প্রাপ্ত হন। চাকরি জীবনে তিনি বিভিন্ন কমান্ড, স্টাফ ও প্রশিক্ষক এর দায়িত্বে নিয়োজিত ছিলেন। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো পাবর্ত্য চট্টগ্রামে জিএসও-৩ (অপারেশন), পদাতিক ব্রিগেডের ব্রিগেড মেজর, সেনাসদর প্রশিক্ষণ পরিদপ্তরের গ্রেড-২ এবং সেনাসদর, বেতন ও ভাতা পরিদপ্তরের গ্রেড-১ স্টাফ অফিসারের দায়িত্ব। মেজর জেনারেল আজিজ একটি আর্টিলারি ইউনিট, একটি বিজিবি ব্যাটালিয়

ন, বিজিবির একটি সেক্টর, স্বতন্ত্র এয়ার ডিফেন্স আর্টিলারি ব্রিগেডসহ মোট দুইটি আর্টিলারি ব্রিগেড এবং একটি পদাতিক ডিভিশন দক্ষতার সাথে কমান্ড করেন। তিনি দীর্ঘদিন স্কুল অব আর্টিলারি এবং স্কুল অব মিলিটারি ইনেটলিজেন্স এর প্রশিক্ষক হিসাবেও দায়িত্ব পালন করেন।

তিনি মোহাম্মদপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, ঢাকা হতে ১৯৭৫ সালে এসএসসি এবং ১৯৮০ সালে কলেজ অব টেক্সটাইল টেকনোলজি, ঢাকা হতে টেক্সটাইল টেকনোলজি সম্পন্ন করেন। তিনি ১৯৮৩ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় হতে বিএ (পাস), ১৯৯৪ সালে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় হতে মাস্টার অব ডিফেন্স স্টাডিজ ও ২০০৮ সালে এমএসসি (টেকনিক্যাল) এবং ২০০৮ সালে আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ইন বাংলাদেশ থেকে এমবিএ (এক্সিকিউটিভ) সম্পন্ন করেন।

মেজর জেনারেল আজিজ ১৯৮৯-১৯৯০ সালে আর্টিলারি সেন্টার ও স্কুল, হালিশহর, চট্টগ্রাম হতে অফিসার্স গানারী স্টাফ কোর্স এবং ১৯৯২-১৯৯৩ সালে ভারতের দেওলালী হতে লং গানারী স্টাফ কোর্স সম্পন্ন করেন। তিনি একজন মিরপুরিয়ান এবং ১৯৯৪-১৯৯৫ সালে সাফল্যের সাথে আর্মি স্টাফ কোর্স-১৯ সম্পন্ন করেন। তিনি জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনের অধীনে ১৯৯৫-১৯৯৬ সালে ইরাক-কুয়েত এ পর্যবেক্ষক এবং ২০০৫-২০০৬ সালে সুদানে জাতিসংঘ মিশন এ ফোর্স কমান্ডার এর সামরিক উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

তিনি সিঙ্গাপুর, ভারত, কুয়েত, সৌদিআরব, ইরাক, সাইপ্রাস, ফিজি, অষ্ট্রেলিয়া, থাইল্যান্ড, চায়না, হংকং, সুদান, কেনিয়া, উগান্ডা, বাহরাইন এবং মালয়েশিয়া ইত্যাদি দেশ সমূহ ভ্রমন করেছেন। তিনি বিবাহিত। তাঁর স্ত্রী বেগম দিলশাদ নাহার আজিজ একজন গৃহিনী। তিনি তিন পুত্র সন্তানের জনক। খেলাধুলা প্রিয় জেনারেল আজিজ গলফ-এ বিশেষ উৎসাহী, অবসরে তিনি বই পড়েন।

Comments are closed.

Scroll To Top
Bangladesh Affairs