সর্বশেষ সংবাদ :

অর্ধশত তোরণে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোঃ নাসিমের অভিবাদন

Share Button
220141108095145
দৈনিক মুক্তকন্ঠ রিপোর্ট:
প্রকাশ: ৮ নভেম্বর ২০১৪।
স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান মন্ত্রী আলহাজ্ব মোহাম্মদ নাসিমের আগমন উপলক্ষ্যে বগুড়ার ধুনট উপজেলায় অর্ধশত তোরণ নির্মাণ করেছে আওয়ামী লীগ, সহযোগি সংগঠন ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নেতৃবৃন্দ। মন্ত্রীকে অভিবাদন জানিয়ে এসব তোরণ নির্মাণ করা হয়েছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের মথুরাপুর-খাটিয়ামারী সড়কের কলাতলা খালের উপর ৬ কোটি টাকা ব্যয়ে ১২৫ মিটার দৈর্ঘ্য আরসিসি গার্ডার সেতু নির্মাণ করা হয়েছে। আজ শনিবার বিকেলে ওই সেতুটি উদ্বোধন করতে আসবেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। মন্ত্রীর আগমন উপলক্ষ্যে মথুরাপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ স্থানীয় জিএমসি কলেজ মাঠে বিশাল জনসভার আয়োজন করেছে। এসব আয়োজন ঘিরে এলাকায় তোরণ, ব্যানার-ফেস্টুনসহ বিভিন্ন ভাবে সাজানো হয়েছে।
আয়োজক সূত্রে জানা যায়, শনিবার দুপুর ২টায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী বগুড়া থেকে শেরপুর উপজেলা হয়ে সড়কপথে ধুনট উপজেলায় আসবেন। হুকুমআলী বাসষ্ট্যান্ড হয়ে কলাতলা খাল এবং সেতুর উদ্বোধন শেষে তিনি জিএমসি কলেজ মাঠে জনসভার মঞ্চে উপস্থিত হবেন।
দেখা গেছে, শেরপুর উপজেলার ধুনট মোড় থেকে ধুনটের হুকুম আলী বাসষ্ট্যান্ড পর্যন্ত ১০টি তোরণ নির্মাণ করা হয়েছে। হুকুম আলী বাসষ্ট্যান্ড থেকে মথুরাপুরের কলাতলা খাল ও জনসভাস্থল পর্যন্ত আরো প্রায় ৪০টি তোরণ রয়েছে। আওয়ামী লীগ ও সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, জনপ্রতিনিধি, সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে এসব তোরণ করা হয়েছে। এছাড়া প্যানা ব্যানার ও ফেস্টুনে রাস্তার দু’পাশ দিয়ে টাঙ্গানো হয়েছে। তোরণ, ব্যানার, ফেস্টুনে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি রয়েছে। পাশাপাশি বড় আকারে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম ও স্থানীয় সংসদ সদস্য হাবিবর রহমানের ছবি দেওয়া হয়েছে। এসব ব্যানারে আগমন উপলক্ষ্যে মন্ত্রীকে ও উন্নয়নে স্থানীয় এমপি ব্যাপক ভূমিকা রাখায় তাদের অভিবাদন জানানো হয়েছে।
স্থানীয়রা জানিয়েছেন, প্রতিটি তোরণ নির্মাণে ব্যয় হয়েছে প্রায় ৫ হাজার টাকা। গত বুধবার থেকে রাস্তার দু’পাশ দিয়ে এসব তোরণ নির্মাণ করা হয়। দেখাদেখি প্রতিদিনই তোরণের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। শনিবার সকালে কয়েকটি তোরণ নির্মাণ করতে দেখা গেছে।
ধুনট উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হাই খোকন বলেন, মথুরাপুর ইউনিয়নের কলাতলা খালের সেতু নির্মাণ হওয়ায় ৩টি ইউনিয়নের মানুষের মধ্যে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন সাধন হয়েছে। স্বাধীনতার পরবর্তি সময়ে সেতুটি নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দিয়ে জনপ্রতিনিধিরা শুধু ভোট নিয়েছেন। বর্তমান সংসদ সদস্য মহোদয়ের প্রচেষ্টায় এই সেতু নির্মিত হওয়ায় এলাকার মানুষ তার প্রতি কৃতজ্ঞ। এই উন্নয়ন আওয়ামী লীগের স্বাক্ষর হয়ে থাকবে। এজন্য কলাতলা খালের সেতু’র উদ্বোধন ঘিরে মানুষের মাঝে ব্যাপক সারা পড়েছে।
স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব হাবিবর রহমান বলেন, স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম কাজীপুর উপজেলার মানুষ। কাজীপুরের পাশের উপজেলা হওয়ায় তিনি ধুনটের উন্নয়ন ও মানুষের সুখ-দুঃখে পাশে থাকতেন। নব্বই দশকে তিনি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী থাকা অবস্থায় ধুনট উপজেলার বিভিন্ন উন্নয়ন সাধনে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন। কাজেই মোহাম্মদ নাসিম ধুনটের মানুষের অত্যন্ত প্রিয়। এমপি হাবিবর রহমান বলেন, বর্তমান সরকারের ২য় মেয়াদে মোহাম্মদ নাসিম স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান মন্ত্রী হয়েছেন। তিনি মন্ত্রী হওয়ার পর এই প্রথম ধুনটে আসছেন। প্রিয় নেতার আগমন ঘিরে স্থানীয় নেতাকর্মী ও ধুনটবাসীর মধ্যে উৎসাহ-উদ্দিপনা দেখা দিয়েছে।

Comments are closed.

Scroll To Top
Bangladesh Affairs