সর্বশেষ সংবাদ :

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

Share Button

Related image

রিপোর্ট:-দৈনিক মুক্তকন্ঠ,
০৯অক্টোবর ২০১৭। সময়: ০৯.২০.PM,

দেশব্যাপী বহুল আলোচিত কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে যাত্রীবাহী নৈশকোচে পেট্রোল বোমা হামলা চালিয়ে ৮ যাত্রীকে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াসহ ৪৬ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারী এবং বিস্ফোরক আইন ও নাশকতা ঘটনায় দায়েরকৃত অপর দুটি মামলা অধিকতর তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। গতকাল সোমবার দুপুরে কুমিল্লা জেলা ও দায়রা জজ বেগম জেসমিন আরা এ আদেশ দেন। ওই মামলায় চার্জশিটভুক্ত বিএনপি জামায়াতের আরও অনেক কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতাকর্মী রয়েছেন। আদালতের পিপি এড.মোস্তাফিজুর রহমান লিটন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
মামলার চার্জশিটে অভিযুক্ত যারা
হত্যা ও বিস্ফোরক আইনে দায়েরকৃত মামলার তদন্ত শেষে তদন্তকারী কর্মকর্তা চৌদ্দগ্রাম থানার এসআই ইব্রাহিম খালেদা জিয়াসহ ৭৮ জনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। দুটি মামলায় বেগম খালেদা জিয়ার নাম ৫১ নম্বরে অর্ন্তভুক্ত করা হয়। ৩ ফেব্রুয়ারি রাতে বাসে পেট্টোল বোমা হামলায় ৮ জনকে পুড়িয়ে হত্যা ও বিস্ফোরক আইনে দায়েরকৃত পৃথক দুটি মামলায় খালেদা জিয়া ছাড়াও জামায়াতের কেন্দ্রীয় নেতা ও চৌদ্দগ্রামের সাবেক এমপি ডা. সৈয়দ আবদুল্লাহ মোহাম্মদ তাহেরকে প্রধান আসামি করা হয়। এ দুটি মামলায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া, এম.কে আনোয়ার, যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম মহাসচিব সালাউদ্দিন আহমেদ, বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মনিরুল হক চৌধুরী, শওকত মাহমুদ, স্থানীয় বিএনপি নেতা কামরুল হুদা, জামায়াত নেতা শাহাব উদ্দিন, শাহ মিজানুর রহমান, জামাল,মনির,তহিদুল ইসলাম, এডভোকেট শাহজাহানসহ ৭৮ জনকে অভিযুক্ত করা হয়। কাভার্ড ভ্যান পোড়া মামলায় খালেদা জিয়াসহ ৩২ জন স্থানীয় বিএনপি-জামায়াতের নেতাকর্মীকে অভিযুক্ত করা হয়। এ মামলায় খালেদা জিয়ার নাম ৩২ নম্বরে অর্ন্তভুক্ত করা হয়। চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল ফয়সাল জানান, এসব মামলায় পুলিশ এ পর্যন্ত ২৫ জনকে গ্রেফতার করেছে। এদের মধ্যে জাকির, মোতালেব ও আলমগীর নামে ৩ জন আসামি ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার বিষয়ে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

Comments are closed.

Scroll To Top
Bangladesh Affairs