সর্বশেষ সংবাদ :

জাতীয় সংসদ নির্বাচনে হেভিওয়েটদের লড়াই কুমিল্লায়

Share Button

হেভিওয়েটদের লড়াই কুমিল্লায়

রিপোর্ট:-দৈনিক মুক্তকন্ঠ,
১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৭। সময়: ১১.২০.PM,

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ঘিরে কুমিল্লায়ও বইছে নির্বাচনী হাওয়া। জেলার  মোট ১১টি সংসদীয় আসনে আওয়ামী লীগ-বিএনপিসহ বিভিন্ন দলের অন্তত অর্ধশত মনোনয়ন প্রত্যাশী নির্বাচনী মাঠে সরব রয়েছেন।

সংসদীয় (২৪৯, ২৫০, ২৫১, ২৫২, ২৫৩, ২৫৪, ২৫৫, ২৫৬, ২৫৭ ও ২৫৮) আসনে এরই মধ্যে শুরু হয়ে গেছে সম্ভাব্য প্রার্থীদের দৌড়ঝাঁপ। পোস্টার, ব্যানারসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও অনেকেই প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। প্রায় প্রতিটি আসনে আওয়ামী লীগ-বিএনপির একাধিক মনোনয়ন প্রত্যাশী রয়েছেন। বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে তারা নিজেদের প্রার্থী হওয়ার বিষয়টি জানান দিচ্ছেন। অনেকেই গণমাধ্যম কর্মীদেরও দৃষ্টি আকর্ষণেরও চেষ্টা করছেন। তবে তুলনামূলকভাবে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা সরব হলেও অনেকটা নীরবে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন বিএনপির প্রার্থীরা। কার্যত, কুমিল্লায় লড়াই হবে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির প্রার্থীর মধ্যে। এ জেলায় বড় দুই দলেই রয়েছেন বেশ কয়েকজন হেভিওয়েট প্রার্থী। তাদের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন কিছু নতুন মুখও।

কুমিল্লা-১ (দাউদকান্দি-মেঘনা) : এ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে বর্তমান এমপি সুবিদ আলী ভূইয়া, মেঘনা উপজেলার প্রতিষ্ঠাতা উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি শফিকুল আলম, হামদর্দ ইউনিভার্সিটির ভিসি আবদুল মান্নান জয়, আওয়ামী লীগ নেতা ব্যারিস্টার নাঈম হাসান ও সফিউল বাশার ভাণ্ডারীর নাম শোনা যাচ্ছে। এ আসনে বিএনপির একক মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে আলোচনায় রয়েছেন  বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

কুমিল্লা-২ (হোমনা-তিতাস) : এ আসনে বিএনপির একক মনোনয়ন প্রত্যাশী হলেন স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী এম কে আনোয়ার। অন্যদিকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী হোমনা উপজেলা সভাপতি অধ্যক্ষ আবদুল মজিদ ও তিতাস উপজেলোর সাবেক চেয়ারম্যান তরুণ নেতা পারভেজ হোসেন সরকার। জাতীয় পার্টির মনোনয়ন প্রত্যাশী বর্তমান এমপি আমির হোসেন।

কুমিল্লা-৩ (মুরাদনগর) : এ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী বর্তমান এমপি ইউসুফ আবদুল্লাহ হারুন ও উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম সরকার। বিএনপি থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী হলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া, ভাইস চেয়ারম্যান শাহ মোফাজ্জল হোসাইন কায়কোবাদ ও যুবদলের কেন্দ্রীয় সাবেক শিল্পবিষয়ক সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া সরকার। কায়কোবাদ গত ১০ বছর ধরে দেশের বাইরে। ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া দলে বলিষ্ঠ ভূমিকায় রয়েছেন। জাতীয় পার্টির মনোনয়ন প্রত্যাশী উপজেলা সভাপতি আক্তার হোসেন।

কুমিল্লা-৪ (দেবিদ্বার) : এ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী বর্তমান এমপি রাজী মো. ফখরুল, সাবেক এমপি এবিএম গোলাম মোস্তফা, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ হুমায়ুন মাহমুদ, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রৌশন আলী মাস্টার। বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী সাবেক এমপি মঞ্জুরুল আহসান মুন্সী ও কেন্দ্রীয় বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল আউয়াল খান। জাতীয় পার্টির মনোনয়ন প্রত্যাশী কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইকবাল হোসেন রাজু। ন্যাপের মনোনয়ন প্রত্যাশী আমেনা আহমেদ।

কুমিল্লা-৫ (বুড়িচং-ব্রাহ্মণপাড়া) : এ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী বর্তমান এমপি আবদুল মতিন খসরু ও আওয়ামী লীগ নেতা ব্যারিস্টার সোহরাব খান চৌধুরী। বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী সাংবাদিক শওকত মাহমুদ ও ব্রাহ্মণপাড়া বিএনপির সভাপতি জসিম উদ্দিন।

কুমিল্লা-৬ (সদর) : এ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী বর্তমান এমপি আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার, আফজাল খানের পুত্র ব্যবসায়ী নেতা মাসুদ পারভেজ খান ইমরান ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা তানিম আহমেদ। বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আমিন-উর রশিদ ইয়াছিন ও জেলার প্রভাবশালী নেতা কাউসার জামান বাপ্পী। কল্যাণ পার্টি থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী দলের ভাইস চেয়ারম্যান সাহিদুর রহমান তামান্না।

কুমিল্লা-৭ (চান্দিনা) : এ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী বর্তমান এমপি অধ্যাপক আলী আশরাফ ও উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি অধ্যাপক ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত। বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী উত্তর জেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক এমপি খোরশেদ আলম। এলডিপির মনোনয়ন প্রত্যাশী দলের কেন্দ্রীয় মহাসচিব ড. রেদোয়ান আহমেদ। জাতীয় পার্টির মনোনয়ন প্রত্যাশী উত্তর জেলা সভাপতি লুত্ফর রেজা খোকন।

কুমিল্লা-৮ (বরুড়া) : এ আসনে জাতীয় পার্টির মনোনয়ন প্রত্যাশী বর্তমান এমপি অধ্যাপক নুরুল ইসলাম মিলন। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী সাবেক এমপি নাসিমুল আলম চৌধুরী নজরুল, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম। বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী সাবেক এমপি কেন্দ্রীয় বিএনপির কর্মসংস্থানবিষয়ক সম্পাদক জাকারিয়া তাহের সুমন ও যুবদলের কেন্দ্রীয় সিনিয়র সহ-সভাপতি মোরতাজুল করিম বাদরু।

কুমিল্লা-৯ (লাকসাম-মনোহরগঞ্জ) : এ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী বর্তমান এমপি তাজুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের উপকমিটির সাবেক সদস্য ও ছাত্রলীগের সাবেক সহসম্পাদক দেলোয়ার হোসেন ফারুক ও নুরুন্নবী চৌধুরী কামাল। জাপার মনোনয়ন প্রত্যাশী গোলাম মোস্তফা। বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী সাবেক এমপি দলের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ারুল আজিম, বিএনপির কেন্দ্রীয় শিল্পবিষয়ক সম্পাদক আবুল কালাম, সাবেক যুবদল নেতা ড. রশিদ আহমেদ হোসাইনী ও সফিকুর রহমান। অন্যদিকে বিএনপির সাবেক এমপি বীর মুক্তিযোদ্ধা এটিএম আলমগীর সংসদ নির্বাচন করবেন বলে জানিয়েছেন। তবে কোন দল থেকে করবেন তা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর সিদ্ধান্ত নেবেন।

কুমিল্লা-১০ (নাঙ্গলকোট-সদর দক্ষিণ) : এ আসনে আওয়ামী  লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী  পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। আসন ভাগাভাগি না হলে এ আসনে লোটাস কামালই দলের একক প্রার্থী। বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মনিরুল হক চৌধুরী, সাবেক এমপি আবদুল গফুর ভূঁইয়া, দক্ষিণ জেলা বিএনপির সহসভাপতি মোবাশ্বের আলম ভূঁইয়া এবং স্বেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও জেলা বিএনপির সদস্য শাহাবুদ্দীন আহমদ ফারুক। এ ছাড়া এনপিপি থেকে দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য অহিদুর রহমান বিএনপি জোট থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী।

কুমিল্লা-১১ (চৌদ্দগ্রাম) : এ আসনে আওয়ামী লীগের একক মনোনয়ন প্রত্যাশী রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক মুজিব। জামায়াতের মনোনয়ন প্রত্যাশী সাবেক এমপি ডা. সৈয়দ আবদুল্লাহ মোহাম্মদ তাহের। বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী উপজেলা আহ্বায়ক কামরুল হুদা ও দক্ষিণ জেলা বিএনপির সহসভাপতি কাজী নাসিমুল হক।

Comments are closed.

Scroll To Top
Bangladesh Affairs