সর্বশেষ সংবাদ :

কুমিল্লা জেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রতীক পেলেন ৬০ প্রার্থী

Share Button

প্রতীক পেলেন ৬০ প্রার্থী : তাহের চশমা, সাজ্জাদের আনারস

কুমিল্লায় ৬০ প্রার্থীর মাঝে প্রতীক বরাদ্দরিপোর্ট:-দৈনিক মুক্তকন্ঠ,
১৩ ডিসেম্বর , ২০১৬। সময়:০৫.০৫.PM

কুমিল্লা জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। গতকাল জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক মো: জাহাংগীর আলম প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দেন। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী রিয়ার এডমিরাল আবু তাহের পেয়েছেন চশমা প্রতীক। তার প্রতিদ্বন্দ্বি চেয়ারম্যান প্রার্থী কুমিল্লা জেলা আওয়ামী লীগের ১ম যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন পেয়েছেন আনারস প্রতীক। এসময় দুই চেয়ারম্যান প্রার্থী উপস্থিত থেকে প্রতীক বুঝে নেন। উপস্থিত ছিলেন জেলার সিনিয়র নির্বাচন অফিসার রাশেদুল ইসলামসহ নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তারা। এছাড়াও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ও সাধারণ সদস্যর মাঝেও এদিন প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়। প্রতীক পাওয়ার পর বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী আবু তাহের (চশমা) বলেছেন, প্রিয় নেত্রী শেখ হাসিনার সমর্থন নিয়ে আমি মাঠে নেমেছি। ইনশাল্লাহ চেয়ারম্যান পদে আমি বিজয়ী হবো। কুমিল্লার সার্বিক উন্নয়নে কাজ করতে চাই। নির্বাচিত হয়ে সবার সহযোগিতা জেলা পরিষদের উন্নয়নের কাজ করতে চাই। অপর চেয়ারম্যান প্রার্থী সাজ্জাদ হোসেন (আনারস) বলেন, তৃণমূল নেতাকর্মী ও ভোটারদের উৎসাহ – অনুপ্রেরণা পেয়ে আমি নির্বাচনে অংশ নিয়েছি। তাদের দোয়া ও ভালোবাসায় ইনশাল্লাহ আমি বিজয়ী হবো। নির্বাচনের মাঠে জয় পরাজয় থাকবেই। তবে সুষ্ঠু ও সুন্দর শান্তিপূর্ণ নির্বাচন আশা করছি কমিশনের কাছে। শান্তিপূর্ণ ভোট হলে ভোটাররা আমাকেই বিজয়ী করবেন।

কোন প্রার্থী কি প্রতীক পেলেন:
১নং ওয়ার্ডে সংরক্ষিত আসনে মিসেস জেবন নেসা জীবন (স্বপ্ন) পেয়েছেন ফুটবল, মোসাম্মৎ পারুল আক্তার পেয়েছেন দোয়াত কলম। ২নং ওয়ার্ডে শিরিন সুলতানা পেয়েছেন ফুটবল ও সরকার সেলিনা রহমান পেয়েছেন বই। ৩নং ওয়ার্ডে ফাহমিদা জেবিন পেয়েছেন দোয়াত কলম ও মোসাম্মদ লাভলী আক্তার পেয়েছেন ফুটবল। ৪নং ওয়ার্ডে তানজিনা আক্তার বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত। ৫নং ওয়ার্ডে সালমা আক্তার বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত। সাধারণ সদস্য পদে ১নং ওয়ার্ডে আলমগীর রহমান পেয়েছেন বৈদ্যুতিক পাখা, মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন পেয়েছেন তালা ও মো: সাইফুল্লাহ মিয়া রতন শিকদার পেয়েছেন ঘুড়ি। ২নং ওয়ার্ডে এ বি এম আমিরুল ইসলাম পেয়েছেন হাতি, মো: কাজল মিয়া পেয়েছেন টিউবওয়েল, মো: খলিলুর রহমান পেয়েছেন তালা, মো: খায়রুল আলম পেয়েছেন বৈদ্যুতিক পাখা, মো: মজিবুর রহমান পেয়েছেন ঘুড়ি। ৩নং ওয়ার্ডে জসিম হাসান পেয়েছেন ঢোল, মো: আক্তারুজ্জামান ভূইয়া পেয়েছেন হাতি, মো: আবদুল আউয়াল ভূঞা পেয়েছেন বৈদ্যুতিক পাখা, মো: আসলাম মিয়াজী পেয়েছেন তালা, মো: বিল্লালুর রশিদ দোলন পেয়েছেন অটোরিক্সা, মো: মোখলেছুর রহমান পাঠান পেয়েছেন টিউবওয়েল, মো: মনির হোসেন পেয়েছেন ঘুড়ি।৪নং ওয়ার্ডে পদে মো: জহিরুল ইসলাম পেয়েছেন তালা, মো: মহিউদ্দিন খন্দকার পেয়েছেন ঘুড়ি, মো: মাহবুবুর রহমান খন্দকার পেয়েছেন হাতি, মো: শহীদউল্লাহ পেয়েছেন বৈদ্যুতিক পাখা ও মো: সিরাজুল টম সুডেন পেয়েছেন টিউবওয়েল।সাধারণ সদস্য পদে ৫নং ওয়ার্ডে মো: আব্দুল হাকিম পেয়েছেন টিউবওয়েল, মো: জাকির হোসেন পেয়েছেন তালা, মো: তৈয়বুর রহমান পেয়েছেন ঘুড়ি ও মো: হাবিবুর রহমান পেয়েছেন হাতি। ৬নং ওয়ার্ড থেকে গোলাম মোস্তফা পেয়েছেন টিবউওয়েল, মো: ওবায়দুল হাসান (রাসেল) পেয়েছেন অটোরিক্সা, মো: মোসলে উদ্দিন ভূইয়া পেয়েছেন তালা, মো: শাহজাহান সরকার পেয়েছেন হাতি ও মো: ময়নাল হোসেন পেয়েছেন উটপাখি। ৭নং ওয়ার্ড থেকে এম এ জলিল ভূঁইয়া পেয়েছেন হাতি, মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেন ভূঁইয়া পেয়েছেন টিউবওয়েল, মো: তারেক হায়দার পেয়েছেন তালা, মো: রেজাউল করিম পেয়েছেন ঘুড়ি।
সাধারণ সদস্য পদে ৮নং ওয়ার্ড থেকে আবদুল্লাহ আল মাহমুদ (সহিদ) বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত। ৯নং ওয়ার্ড থেকে মো: আবু ছালাম পেয়েছেন অটোরিক্সা, মো: জাহাঙ্গীর আলম পেয়েছেন টিউবওয়েল, মো: মোখলেছুর রহমান পেয়েছেন হাতি, শহিদুল ইসলাম পেয়েছেন তালা। ১০নং ওয়ার্ড থেকে মফিজুল ইসলাম খন্দকার পেয়েছেন তালা, মোহাম্মদ কামাল হোসেন ভুঁইয়া পেয়েছেন অটোরিক্সা, মোহাম্মদ সোহেল সামাদ পেয়েছেন ঘুড়ি ও মো: আমিনুল ইসলাম খান পেয়েছেন বৈদ্যুতিক পাখা। সাধারণ সদস্য পদে ১১ নং ওয়ার্ড থেকে মো: আবদুল কাইয়ুম চৌধুরী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত। ১২নং ওয়ার্ড থেকে মো: আবু তাহের পেয়েছেন বৈদ্যুতিক পাখা ও মো: দুলাল মিয়া পেয়েছেন তালা। ১৩নং ওয়ার্ড থেকে মো: তৌহিদুল ইসলাম মজুমদার পেয়েছেন টিউবওয়েল ও মাষ্টার আলী আজম মজু পেয়েছেন তালা। ১৪নং ওয়ার্ড থেকে মো: আবু বকর ছিদ্দিক পেয়েছেন তালা ও মোস্তাক আহম্মদ পেয়েছেন হাতি। এছাড়াও সাধারণ সদস্য পদে ১৫নং ওয়ার্ড থেকে ফারুক আহাম্মদ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

Comments are closed.

Scroll To Top
Bangladesh Affairs