সর্বশেষ সংবাদ :

৩ ঘণ্টার পথ পেরোতে ১১ ঘণ্টা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ভয়াবহ যানজট

Share Button

75203_1-3

রিপোর্টারঃ-মোঃ সফিকুর রহমান সেলিম
০১ অক্টোবর ২০১৪
পবিত্র ঈদুল আজহা সামনে রেখে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যানজট ভয়াবহ রূপ ধারণ করেছে। এতে ঈদ ও দুর্গাপূজা উপলে ঘরমুখো মানুষের দুর্ভোগ চরমে পৌঁছেছে। ঢাকা থেকে ফেনী ৩ ঘণ্টার পথ পাড়ি দিতে গতকাল সময় লাগছে ১০-১১ ঘণ্টা।
পুলিশ, প্রত্যদর্শী ও ভুক্তভোগী সূত্র জানায়, গতকাল ভোর থেকে মহাসড়কে যানজট ক্রমেই তীব্র আকার ধারণ করে। কুমিল্লার দাউদকান্দি থেকে চৌদ্দগ্রাম পর্যন্ত অংশে যানজটের তীব্রতা ছিল বেশি। মহাসড়কে বিভিন্ন ধরনের গাড়ি ঘণ্টার পর ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থাকে। এতে যাত্রীসাধারণ বিশেষ করে নারী ও শিশুরা অবর্ণনীয় দুর্ভোগের শিকার হন। স্টার লাইন পরিবহনের নির্বাহী পরিচালক জাফর উদ্দিন জানান, মহাসড়কের পাশে কোরবানির পশুর বাজার ছাড়াও পশুবাহী ট্রাক ও বিভিন্ন ধরনের পরিবহন মহাসড়কে অতিমাত্রায় চলাচল করায় যানজট তীব্রতর হয়। ঢাকা থেকে প্রাইভেট কারে ফেনীর উদ্দেশে রওনা হওয়া এক পুলিশ কর্মকর্তা জানান, সকাল ১০টার দিকে তিনি ঢাকা থেকে রওনা হয়ে বেলা সাড়ে ৩টার দিকে চান্দিনা পৌঁছেছেন। তিনি বলেন, দুই পাশেই হাজার হাজার গাড়ি দেখা গেলেও কী কারণে যানজট তা কেউই বলতে পারছেন না। তবে এলেমেলো গাড়ি চলাচল, খালি স্থান পেলেই লাইন ভেঙে এলোপাতাড়ি ঢুকে যাওয়াÑ এসব কারণে যানজট কমছে না। তিনি আরো বলেন, যানজট নিরসনে পুলিশের তৎপরতা কেবল নির্ধারিত পয়েন্টে সীমাবদ্ধ থাকায় অন্যান্য এলাকা অনেকটা অরতি পড়ে থাকে। ফলে যে যেভাবে পারছে সেভাবে গাড়ি চালায়। ফেনী জেলা বিএমএর সাধারণ সম্পাদক ডা: সাহেদুল ইসলাম কাওছার ঢাকা থেকে ভোর ৫টায় রওনা হয়ে এক ঘণ্টায় গৌরিপুর পৌঁছান। সেখান থেকে কুমিল্লা বিশ্বরোড পৌঁছতে তার সময় লাগে ৮ ঘণ্টা। তিনি বলেন, তীব্র যানজটে যাত্রীদের দুর্ভোগের শেষ নেই। নাম প্রকাশ না করার শর্তে ভুক্তভোগী আরেক যাত্রী জানান, যানজট নিরসনের দায়িত্বে থাকা পুলিশ সদস্যদের অনেকেই পশুবাহী ট্রাকসহ বিভিন্ন পণ্য পরিবহনে চাঁদা আদায়ে ব্যস্ত। চাঁদা আদায় করতে গিয়েও গাড়ির দীর্ঘ লাইন হয়ে যায়। আমাদের দাউদকান্দি প্রতিনিধি হানিফ খান জানান, মহাসড়কের বিভিন্ন স্থানে সোমবার রাতে কয়েকটি গাড়ি বিকল হয়ে পড়লে যানজট সৃষ্টি হয়।
হাইওয়ে পুলিশের ওসি মিজানুর রহমান চাঁদাবাজির অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ইলিয়টগঞ্জ সংলগ্ন স্থানে গভীর রাতে একটি কাভার্ডভ্যানের দুর্ঘটনার ফলে যানজটের সৃষ্টি হয়। তা ক্রমেই তীব্র আকার ধারণ করে।
এসব বিষয়ে জানতে চাইলে কুমিল্লা হাইওয়ে পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: এনামুল হক নয়া দিগন্তকে বলেন, দুপুরের পর থেকে যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। সন্ধ্যা ৬টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ঢাকাগামী গাড়ি পুরোদমে চলছে বলে তিনি জানান। তবে চট্টগ্রামগামী গাড়ি কিছুটা ধীরগতিতে চলছে।
ফেনীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: সাইফুল হক বলেন, মহাসড়কের ফেনী অংশে যানজট নিয়ন্ত্রণে পুলিশ সার্বণিক সতর্ক রয়েছে। গতকাল বিকেলে মহাসড়কের ফেনী অংশের সমিতি বাজার নামক স্থানে অবৈধ কোরবানির পশুহাট বসলে তা পুলিশ উচ্ছেদ করে দেয় বলে সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল) মুহম্মদ শামছুল আলম সরকার নয়া দিগন্তকে জানান।
 http://dailymuktokontho.com

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Scroll To Top
Bangladesh Affairs