সর্বশেষ সংবাদ :

মাদক ব্যবসায়ী যত বড় গডফাদারই হোক ছাড় নয়

Share Button

রিপোর্ট:-দৈনিক মুক্তকন্ঠ

প্রকাশ: ০২ জানোয়ারী,২০১৬। সময়: ১২.০২.PM

মাদক ব্যবসায় যত বড় গডফাদার জড়িত থাকুক না কেন, সরকার কোনোভাবেই তাদের ছাড় দেবে না বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন। মাদকের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কঠোর নির্দেশের কথা জানিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী যে কথা বলেন সেটা রক্ষা করেন। দেশের আইনের প্রতি শ্রদ্ধা দেখিয়ে নিজ দলের লোকজনের বিরুদ্ধেও সরকার ব্যবস্থা নেয়ার নজির দেখিয়েছেন। দেশব্যাপী মাদক বিরোধী অভিযান ও প্রচারণা মাস’ উদ্বোধন উপলক্ষে শনিবার সকাল ১১টায় কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত সংলগ্ন বিয়াম ল্যাবরেটরি মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন। মন্ত্রী বলেন, ‘সরকারের গোয়েন্দা সংস্থা, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর যৌথভাবে মাদক ব্যবসায়ীদের তালিকা তৈরি করে। এটি একটি চলমান প্রক্রিয়া। তালিকাটি প্রতিনিয়ত হালনাগাদ করা হয়। আসাদুজ্জামান খাঁন বলেন, ‘এতদিন ইয়াবা কারখানা থাকার বিষয় অস্বীকার করলেও এখন মিয়ানমার তা স্বীকার করছে। মিয়ানমার তাদের দেশে থাকা ইয়াবা কারখানাগুলো ধ্বংস করার ব্যাপারে কথাও দিয়েছে। কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মো. আলী হোসেনের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন, কক্সবাজার জেলা পরিষদের প্রশাসক মোস্তাক আহমদ চৌধুরী, কক্সবাজার-৩ আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল, কক্সবাজার-২ আসনের সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক, কক্সবাজার-১ আসনের সংসদ সদস্য হাজী মোহাম্মদ ইলিয়াস, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক খন্দকার রাকিবুর রহমান ও চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয়ের অতিরিক্ত পরিচালক মো. ফজলুর রহমান।

একই সভায় ‘স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত ইয়াবার গডফাদার’ সরকার দলীয় সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদি বক্তব্য রাখতে গিয়ে ঘোষণা দেন, ‘আমাকে কেউ ইয়াবা ব্যবসায়ী প্রমাণ করতে পারলে সংসদ সদস্যের পদ থেকে পদত্যাগ করব। ইয়াবা ব্যবসার সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য ও সাংবাদিকরাও জড়িত দাবি করে তিনি বলেন, ‘আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের অভিযানে বেশি দামের যেসব ইয়াবা উদ্ধার করা হয়, তা সাংবাদিকদের কাছে বিক্রি করা হয়। সাংবাদিকরা ওইসব ইয়াবা ঢাকা-চট্টগ্রাম নিয়ে গিয়ে পাচার করেন। সভায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত ইয়াবা ব্যবসায়ী সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদি ছাড়াও আরও কয়েকজন তালিকাভুক্ত ইয়াবা ব্যবসায়ী উপস্থিত ছিলেন। মাদকের চোরাচালান ও  অপব্যবহারের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলনের লক্ষ্যে জাতীয় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ বোর্ড জানুয়ারি মাসকে দেশব্যাপী ‘মাদক বিরোধী অভিযান ও প্রচারণা মাস’ পালনের ঘোষণা করেন। এ মাসটি কক্সবাজার থেকে উদ্বোধন উপলক্ষে কক্সবাজার মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পক্ষে নেয়া হয় নানা কর্মসূচি। শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় কক্সবাজার জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। এতে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী, সামাজিক সংগঠন, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি ও বিভিন্ন এনজিও সংস্থার লোকজন অংশগ্রহণ করেন। পরে র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের ডায়াবেটিক পয়েন্টের বিয়াম মিলনায়তনে গিয়ে শেষ হয়।

Comments are closed.

Scroll To Top
Bangladesh Affairs