সর্বশেষ সংবাদ :

সাতছড়িতে আবারও গোলাবারুদ উদ্ধার

Share Button
rab-rpg-palo_92547_0
এর আগে গত ৩ জুন এবং ২ ও ১৭ সেপ্টেম্বর এবং সর্বশেষ বৃহস্পতিবার বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করে র‌্যাব
হবিগঞ্জ প্রতিনিধি
হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার সীমান্তবর্তী সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে চতুর্থ দফা অভিযানের দ্বিতীয় দিনে শুক্রবার সন্ধান পাওয়া দুটি বাংকার থেকে বিপুল পরিমাণ গুলি উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

ফাইল ছবি
সাতছড়ি উদ্যান থেকে এ নিয়ে পাঁচ দফায় অস্ত্র উদ্ধার করল র‌্যাব। এর আগে গত ৩ জুন এবং ২ ও ১৭ সেপ্টেম্বর এবং সর্বশেষ বৃহস্পতিবার বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়।
র‌্যাব-৯ এর অধিনায়ক উইং কমান্ডার রিয়াদ হাসান রাব্বানী সাতছড়ি অরণ্যে শুক্রবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, নিয়মিত অস্ত্র উদ্ধারের অংশ হিসেবে গত বুধবার রাতে সাতছড়ি উদ্যানে চতুর্থ দফা অভিযান শুরু করেন তারা। এ অভিযানের দ্বিতীয় দিনে নতুন দুটি বাংকারের সন্ধান পাওয়া গেছে, যেখান থেকে ট্যাংক বিধ্বংসী গোলাসহ বিপুল পরিমাণ গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।
তিনি বলেন, ‘বাংকার দুটি থেকে ট্যাংক বিধ্বংসী কামানের গোলাসহ মেশিনগানের ৯৪৫৪ রাউন্ড গুলি, ৮০টি ম্যাগাজিন, পাঁচটি ওয়াকিটকি ও একটি রেডিও উদ্ধার করা হয়।’
চতুর্থ দফার এ উদ্ধার অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান এ র‌্যাব কর্মকর্তা।
চতুর্থ দফায় অভিযান শুরুর পর বৃহস্পতিবার সংরক্ষিত বনের একটি টিলার মাটি খুঁড়ে তিনটি মেশিনগান, চারটি মেশিনগানের ব্যারেল, আটটি ম্যাগাজিন এবং উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন একটি রেডিও উদ্ধার করা হয়।
এর আগে গত ৩ জুন সাতছড়ির ত্রিপুরা পল্লী ও আশপাশের বিভিন্ন টিলায় প্রথম দফায় অভিযান চালিয়ে সাতটি বাংকারের সন্ধান পাওয়ার কথা জানায় র‌্যাব। এরপর ১৯ জুন পর্যন্ত ওই বনে টিলার নিচের গর্ত ও বাংকার থেকে চারটি ৭ দশমিক ৬২ মিলিমিটার বোরের মেশিন গান, মেশিন গানের পাঁচটি অতিরিক্ত ব্যারেল, ২২২টি কামান বিধ্বংসী রকেট, ২৪৮টি রকেটের চার্জার, ৭ দশমিক ৬২-৩৯ মিলিমিটার বোরের ১১ হাজার ৫৮০ বুলেট, ১২ দশমিক ৭ মিলিমিটার বোরের ২৮৪টি মেশিন গানের বুলেট, ৭ দশমিক ৬২-৫৪ মিলিমিটার বোরের ৪৪০টি বুলেট, ১৯টি মেশন গানের ড্রাম এবং যন্ত্রাংশ উদ্ধার করার কথা জানায় র‌্যাব।
এরপর দ্বিতীয় দফায় গত ২ সেপ্টেম্বর সেখানে অভিযান চালিয়ে আবারও অস্ত্র পাওয়ার জানায় র‌্যাব। ওইদিন সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, উদ্ধার করা অস্ত্র ও গোলাবারুদের মধ্যে নয়টি এসএমজি, একটি এমএমজি, একটি বেটাগান, একটি ৭ দশমিক ৬২ মিলিমিটার বোরের অটোরাইফেল, ছয়টি এসএলআর, দুটি এলএমজি, একটি স্নাইপার টেলিস্কোপিক সাইট এবং ২, ৪০০ গোলাবারুদ রয়েছে।
তৃতীয় দফায় গত ১৭ সেপ্টেম্বর ত্রিপুরা পল্লীর অজিত দেব বর্মার বাড়ির পেছনে একটি গোয়াল ঘরের নিচে থাকা বাংকার খুঁড়ে ১৫ বস্তা গোলাবারুদ পাওয়ার কথা জানায় র‌্যাব। এর মধ্যে ছিল ১১২টি রকেট ও ৪৮টি রকেট চার্জার।

Comments are closed.

Scroll To Top
Bangladesh Affairs