সর্বশেষ সংবাদ :

আগামী ৩১ অক্টোবর শুক্রবার রেলমন্ত্রীর বিয়ের সানাই বাজবে

Share Button

image_136617.mozibul-haque-rail-minister

রিপোর্টঃ-মোঃ সফিকুর রহমান সেলিম
ঢাকা, ১৬ অক্টোবর ২০১৪।

বাংলাদেশের রাজনীতিতে ‘কনফার্মড ব্যাচেলর’ হিসেবে পরিচিত কুমিল্লার চিরকুমার সমিতির প্রধান উপদেষ্টা রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক দেরিতে হলেও অবশেষে বিয়ে করছেন। আগামী ৩১ অক্টোবর শুক্রবার রেলমন্ত্রীর বিয়ের সানাই বাজছে। তার বিয়ে উপলক্ষে নেয়া হয়েছে নানা উদ্যোগ। ৬৭ বছর বয়েসি রেলমন্ত্রীর এই বিয়েকে ঘিরে ইতিমধ্যেই দেশবাসীর ব্যাপক আগ্রহ দেখা দিয়েছে।

এদিকে রেলমন্ত্রী বিয়ের খবরে হতাশা প্রকাশ করেছেন কুমিল্লার চিরকুমার সমিতি সাধারণ সম্পাদক আজিজুর রহমান সিদ্দিকী। তিনি বলেন, ২০০১ সালে কুমিল্লার অবিবাহিত পুরুষদের নিয়ে চিরকুমার সমিতির পথচলা শুরু। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে রেলমন্ত্রী প্রধান উপদেষ্টা হিসেবে রয়েছেন।

সংগঠনের নিয়ম অনুযায়ী কোনো সদস্য বিয়ে করলে তাকে ‘অব্যাহতিপত্র’ তুলে দেয়া হয়। মন্ত্রীকেও এই ‘অব্যাহতিপতি’ তুলে দেবেন তারা। সমিতির সদস্যদের বিয়ের দাওয়াত দিয়েছেন মন্ত্রী।

জানা যায়, রেলমন্ত্রীর বৌভাত অনুষ্ঠিত হবে ১৪ নভেম্বর শুক্রবার ঢাকায়। জাতীয় সংসদের ২ নং এলডি হলে বৌভাতের আয়োজন করা হয়েছে। সন্ধ্যা ৭টা থেকে রেলমন্ত্রী ও তার স্ত্রী হনুফা আক্তার রিক্তা অতিথিদের অভ্যর্থনা জানাবেন।

এ উপলক্ষে মঙ্গলবারই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, বিরোধী দলীয় নেতা রওশন এরশাদ, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদসহ সিনিয়র রাজনীতিকদের কাছে দাওয়াতপত্র পৌঁছানো হয়েছে। বাদ যাবেন না সংসদের সাড়ে তিনশ এমপিও।

মঙ্গলবার তার এপিএস সংসদের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে বিয়ের আমন্ত্রণপত্র বিলি শুরু করলেও তা শেষ করতে পারেননি। সংসদের প্রায় ১০০০ কর্মকর্তা-কর্মচারীকে দাওয়াত দেবেন রেলমন্ত্রী। এছাড়া দাওয়াত পাবে তার মন্ত্রণালয়ের কর্মকতা-কর্মচারীরা।

বিয়ের কার্ড অনুযায়ী কনে হনুফা আক্তার রিক্তার গ্রামের বাড়ি কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার মীরাখলা গ্রামে। রেলমন্ত্রীর হবু শ্বশুরের নাম মরহুম হাসিব উল্লা মুন্সী।
মন্ত্রী মুজিবুল হক বলেছেন, বিয়ে দেরিতে হলেও না হওয়ার চাইতে ভালো। এজন্য আপনাদের সবার দোয়া চাই।

জানা যায়, পরিবারের সবার ছোট রেলমন্ত্রী তার বিয়ের অনুষ্ঠানকে ত্রুটিমুক্ত করতে নানা ব্যবস্থা নিয়েছেন। বিয়ের দিন তিনি ঘোড়ার গাড়িতে চড়ে পাত্রীর বাড়ি যাবেন। আর বউকে নিয়ে আসবেন পালকিতে করে।

বিয়ের দাওয়াত পেয়ে উল্লসিত সংসদের প্রশাসনিক কর্মকর্তা তাহেরা বেগম বলেন, মন্ত্রীর বধূকে দেখার প্রবল ইচ্ছা তার। এছাড়া বর বেশে মন্ত্রীকে কেমন লাগে তা দেখতেও উদগ্রীব তিনি।

Comments are closed.

Scroll To Top
Bangladesh Affairs