‘স্বামীকে খুন করেছি, লাশ নিয়ে যান’

Share Button

10646886_575374975896071_6378423264828904024_n
বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে মিরপুর থানায় ফোন করেন এক তরুণী। ফোনের ওপাশ থেকে বলা হয়, ‘সারেন্ডার করব; স্বামীকে খুন করেছি। লাশ ঘরে আছে। লাশটি নিতে আসুন।’ এর পর লাশ উদ্ধারে ছুটে যায় পুলিশ। লাবণী নামের ওই তরুণী তার স্বামীকে কুপিয়ে হত্যার পর থানায় ফোন করে এভাবেই লাশ উদ্ধারের খবর জানালেন।
পুলিশের মিরপুর বিভাগের ডিসি নিশারুল আরিফ সমকালকে জানান, ওই তরুণী তার স্বামী সালাহ উদ্দিনকে দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করার পর থানায় ফোন করে বিষয়টি জানান। ওই নারীর স্বামী কিছুদিন আগে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। এর পর
গতকাল প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে কথা-কাটাকাটির একপর্যায়ে তাকে মারধরের চেষ্টা করেন। এর পর লাবণী দা দিয়ে কুপিয়ে স্বামীকে খুন করেন।
লাবণী জানান, মঙ্গলবার রাতে তার স্বামীকে খুনের পর লাশ বাসায় লুকিয়ে রাখেন। পরে কোনো উপায়ন্তর না দেখে বুধবার রাতে মিরপুর থানায় ফোন করে বিষয়টি জানান। তার স্বামী মুরগির ব্যবসা করেন।
পরিবার নিয়ে লাবণী কল্যাণপুরের ৩ নম্বর সড়কের ১৪/বি নম্বর বাসায় বাস করতেন। তার চার ও দুই বছরের দুই সন্তান আছে। তার স্বামী সালাহ উদ্দিনের গ্রামের বাড়ি শরীয়তপুরে।