সর্বশেষ সংবাদ :

বন্ধুর জন্যই আজ ঢাকা আসছেন টেন্ডুলকার

Share Button
12
ক্রীড়া প্রতিবেদক,১৪ অক্টোবর ২০১৪।
মাত্রই শুরু হওয়া ইন্ডিয়ান সুপার লিগে (আইএসএল) নিজের দল কেরালা ব্লাস্টার্সকে নিয়ে এমনিতেই ব্যস্ততার অন্ত নেই তাঁর। এর মধ্যে সময় বের করে ঢাকার একটি ক্লাব দলের লোগো উন্মোচন অনুষ্ঠানে তাই আসারই কথা নয় শচীন টেন্ডুলকারের। তবু তিনি আসছেন। আর সেটা শুধুই বন্ধুত্বের খাতিরে বলে দাবি লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ ক্লাবের চেয়ারম্যান লুৎফর রহমানের, ‘অন্য কেউ হলে হয়তো শচীন এ ধরনের কোনো অনুষ্ঠানে আসতই না। কিন্তু আমরা যেহেতু ঘনিষ্ঠ বন্ধু, তাই আমার অনুরোধ ফেলতে পারেননি। তাঁর এ ঢাকা সফরকে সেই বন্ধুত্বের নিদর্শনই বলতে পারেন।’
বন্ধুর ক্লাব দলের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে আজ সকালেই কোনো এক সময় ঢাকায় এসে পৌঁছানোর কথা রয়েছে ভারতীয় ব্যাটিং কিংবদন্তির। চার্টার্ড ফ্লাইটে আসবেন বলে যখন খুশি উড়াল দেওয়ার স্বাধীনতা আছে। তাই লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের পক্ষ থেকে কাল রাতেও সময়টা নির্দিষ্ট করে বলার উপায় ছিল না। এখন থেকে এই নামেই পরিচিত হতে যাওয়া দলটি আসলে অধুনালুপ্ত গাজী ট্যাংক ক্রিকেটার্স। লুৎফর দলটি কেনার সময় এটিই ছিল নাম। এই নামেই সর্বশেষ প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগের শিরোপাও জিতেছে দলটি। তবে নতুন নামে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) অনুমোদন মিলতে বিলম্ব হচ্ছিল। পরিচালনা পর্ষদের সর্বশেষ সভায় লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ নামটি অনুমোদন পেতেই অবশ্য পূর্ব প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী শচীনকে ঢাকায় উড়িয়ে আনার ঘোষণা দিতে আর দেরি করেননি লুৎফর।
ব্যাটিংয়ের প্রায় সব রেকর্ডই নিজের করে নেওয়া শচীন আপাতত মজে আছেন ফুটবল নিয়ে। গত রাতে আইএসএলে তাঁর দল কেরালা ব্লাস্টার্সের প্রথম ম্যাচ ছিল নর্থ ইস্ট ইউনাইটেডের বিপক্ষে। ওই ম্যাচের জন্য কালকের দিনটি আসামের গৌহাটিতে কাটানো ‘ব্যাটিং জিনিয়াস’ আজ সকালে ঢাকায় আসবেন সেখান থেকেই। এ জন্য অবশ্য তাঁর সূচিতে কিছুটা পরিবর্তন আনতে হয়েছে বলেও জানালেন লুৎফর, ‘ওর আসলে ১৪ অক্টোবর গৌহাটি থেকে মুম্বাইয়ে ফিরে যাওয়ার কথা ছিল। মুম্বাইয়ে ফেরার দিনটি ঠিকই থাকছে তবে মাঝখানে বেশ কিছু ঘণ্টা ঢাকায় কাটিয়ে যাবে।’ ক্রিকেটের এত বড় তারকাকে আনার জন্য লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জকে কাঁড়ি কাঁড়ি অর্থ ব্যয় করতে হচ্ছে বলে যে সাধারণ ধারণা, সেটিও যেন ভাঙতে চাইলেন দলটির মালিক লুৎফর, ‘সবাইকে নিশ্চিত করতে চাই যে শচীনের এই সফরের কোনো বিনিময় মূল্য নেই। এটি পুরোপুরি অবাণিজ্যিক একটি সফর। কাজেই এখানে কোনো টাকাপয়সার লেনদেনও নেই। কোনো ধরনের সম্মানী কিংবা পারিশ্রমিক নিচ্ছে না শচীন।’

এমনকি শচীনের ঢাকায় আসার খরচও ক্লাব কর্তৃপক্ষকে জোগাতে হচ্ছে না বলে জানালেন লুৎফর, ‘ও (শচীন) কেরালা ব্লাস্টার্সের খরচেই ঢাকায় আসছে বলা যেতে পারে। কারণ চার্টার্ড ফ্লাইটটি ওর দলেরই ভাড়া করা।’ সকালে ঢাকায় আসার পর থেকে অবশ্য ভীষণ ব্যস্ততায়ই কাটবে শচীন টেন্ডুলকারের। কারণ ঢাকায় এসেই আবার তাঁকে ছুটতে হবে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে। সূচিতে এরকম কিছু রাখার কারণ অবশ্য শচীন নিজেই। তিনি ইউনিসেফের স্যানিটেশন কর্মসূচির শুভেচ্ছাদূত। ওই কর্মসূচির সঙ্গে যায়, এমন কিছু ঢাকা সফরসূচিতে রাখার অনুরোধও আগে থেকেই করে রেখেছিলেন তিনি। সেই অনুযায়ী সকালে ঢাকায় পৌঁছানোর পরই তাঁকে নিয়ে যাওয়া হবে রূপগঞ্জে। সেখানকার নোয়াপাড়া সরকারি বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের উদ্দেশে স্যানিটেশন বিষয়ে সচেতনতামূলক বক্তব্য দেওয়ার পাশাপাশি তাদের সঙ্গে কাটাবেন কিছুটা সময়ও। তবে নিরাপত্তার স্বার্থে এ আয়োজনটি লুৎফরের মালিকানাধীন একটি শিল্প প্রতিষ্ঠানের আঙিনায় হবে বলে জানা গেছে। তবে কর্মদিবসে শচীনের যানজটের ঝক্কিতে পড়ার কোনো সুযোগই নেই। কারণ তাঁকে ঢাকা থেকে রূপগঞ্জে নিয়ে যাওয়া হবে হেলিকপ্টারে করে। সেখানে সবমিলিয়ে ৪০ মিনিটের আয়োজন শেষে রূপগঞ্জ থেকে আবার হেলিকপ্টারেই ঢাকায় ফিরে শচীন মধ্যাহ্নভোজ সারবেন প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে। সেখানকার বিবিধ ব্যঞ্জনের পাশাপাশি শচীনের ভীষণ পছন্দের একটি পদও নিজের বাসা থেকে রান্না করে আনবেন বলে জানালেন লুৎফর, ‘ইলিশ শচীনের খুব পছন্দ। ওর জন্য ইলিশের পদ আমি বাসা থেকেই রান্না করিয়ে আনছি।’ ঝটিকা ঢাকা সফরে যে কারণে আসা, সেই লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের লোগো উন্মোচন অনুষ্ঠানও হবে একই হোটেলে। বিকেলে দুই ঘণ্টার ওই আয়োজনে শচীনের লিখিত বক্তব্যও পাঠ করার কথা আছে। এই অনুষ্ঠানে থাকবেন আইসিসির সভাপতি ও বাংলাদেশের পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামালও। প্রিমিয়ার লিগের বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের নতুন নামে আত্মপ্রকাশ করার দিনে শচীনের হাতে ক্লাবের তরফ থেকে কিছু শুভেচ্ছা স্মারক তুলে দেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন লুৎফর। এর মধ্যে দেশের খ্যাতিমান এক চিত্রশিল্পীর চিত্রকর্ম অন্যতম। সেই অনুষ্ঠান শেষে রাতেই আবার নিজের শহর মুম্বাইয়ে ফিরে যাবেন এ ক্রিকেট কিংবদন্তি।

Comments are closed.

Scroll To Top
Bangladesh Affairs