সর্বশেষ সংবাদ :

১৮তম সার্ক শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রীকে আনুষ্ঠানিকভাবে আমন্ত্রণ

Share Button
Hasina
রিপোর্টঃ-মোঃ সফিকুর রহমান সেলিম
ঢাকা, ১৪ অক্টোবর ২০১৪।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আগামি মাসে নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুতে অনুষ্ঠেয় ১৮তম সার্ক শীর্ষ সম্মেলনে যোগদানের জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।
নেপালের প্রধানমন্ত্রী সুশীল কৈরালার পক্ষে সে দেশের সফররত পররাষ্ট্রমন্ত্রী মহেন্দ্র বাহাদুর পান্ডে গতকাল  সন্ধ্যায় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে তাঁর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করে আমন্ত্রণপত্র পৌঁছে দেন।
বৈঠক শেষে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব এ কে এম শামীম চৌধুরী এ ব্যাপারে সাংবাদিকদের অবহিত করেন। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমন্ত্রণ গ্রহণ করে বলেছেন, শীর্ষ সম্মেলনে যোগদানে আমরা প্রস্তুত রয়েছি।
শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের সমস্যা চিহ্নিতকরণে বাংলাদেশ সবসময় প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে সহযোগিতার ওপর গুরুত্ব আরোপ করে আসছে। তিনি বলেন, আমাদের মধ্যে ঐক্য সংহত হলে আমরা সমস্যাবলী সমাধান করতে পারবো।
প্রেস সচিব বলেন, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ও নেপালের পররাষ্ট্রমন্ত্রী দু’দেশের মধ্যে সড়ক যোগাযোগ স্থাপনসহ আরো কিছু বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছেন।
শেখ হাসিনা বলেন, এ অঞ্চলের ভারসাম্যপূর্ণ প্রবৃদ্ধি ও উন্নয়নে সার্ক দেশগুলোর মধ্যে একটি চুক্তি হতে হবে। কাঠমান্ডুর সঙ্গে অবকাঠামোগত যোগাযোগের লক্ষ্যে বাংলাদেশ, ভারত ও নেপালের মধ্যে একটি ত্রিপক্ষীয় চুক্তির প্রয়োজনীয়তার ওপরও তিনি গুরুত্ব আরোপ করেন। এ ব্যাপারে আলোচনা চলছে বলেও তিনি জানান।
নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৬৯তম অধিবেশনের সময় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠকের কথা স্মরণ করে শেখ হাসিনা বলেন, নেপালের সঙ্গে সংযোগের জন্য ত্রিপক্ষীয় চুক্তির ব্যাপারে তিনি একটি প্রস্তাব দিয়েছেন।
শেখ হাসিনা হিমালয় থেকে কক্সবাজার পর্যন্ত পর্যটন বিকাশে বাংলাদেশ ও নেপালের যৌথ প্রচেষ্টার ওপরও গুরুত্ব আরোপ করেন।
নেপালের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ অঞ্চলের ভারসাম্যপূর্ণ প্রবৃদ্ধি ও উন্নয়নে সম্পদ ভাগাভাগির ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে একমত প্রকাশ করেন।
এ সময় প্রধানমন্ত্রীর পররাষ্ট্র উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী ও মুখ্য সচিব আবদুস সোবহান সিকদার উপস্থিত ছিলেন।
আগামি ২৬ ও ২৭ নভেম্বর কাঠমান্ডুতে ১৮তম সার্ক শীর্ষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। ১৯৯৭ ও ২০০২-এর পর এ নিয়ে তৃতীয়বার নেপাল সার্ক শীর্ষ সম্মেলন আয়োজন করছে।

Comments are closed.

Scroll To Top
Bangladesh Affairs